বুধবার, ২৫ এপ্রিল ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৭:৫৬:০৫

ভোলায় কমিউনিটি ক্লিনিকে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন ২১ লাখেরও বেশি রোগী

ভোলায়  কমিউনিটি ক্লিনিকে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন ২১ লাখেরও বেশি রোগী

ভোলা প্রতিনিধি : দ্বীপজেলা ভোলার ৭ উপজেলার ২১৩টি কমিউনিটি কিনিকে গত ১ বছরে (২০১৭ সালে) ২১ লাখ ১২ হাজার ৪৩৩ জন রোগী বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করেছেন। এর মধ্যে পুরুষ ৫লাখ ৩৫ হাজার ৭৫৮, নারী ১৪ লাখ ৪৫ হাজার ৭২৬ ও শিশু রয়েছে ১ লাখ ৩০ হাজার ৯৪৯ জন। এছাড়া প্রায় দেড় হাজার মা নিরাপদে এসব কিনিক থেকে সন্তান প্রসব করে সুস্থ আছেন। এই সময়ের মধ্যে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্যত্র রেফার করা হয়েছে ২০ হাজারেরও বেশি রোগীকে। দিন দিন প্রচার-প্রচারণা ও মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পাওয়ায় এসব কিনিকে রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ এই উদ্যোগের ফলে গ্রামাঞ্চলের সাধারণ মানুষকে এখন আর বিনা চিকিৎসায় অপ-চিকিৎসায় জীবন দিতে হচ্ছে না। সম্পূর্ণ সরকারিভাবে ঘরের কাছে এমন সেবা পেয়ে ভীষন খুশি দ্বীপ জেলার বাসিন্দারা।

উপজেলা সদরের ধনিয়া কমিউনিটি কিনিকে গিয়ে দেখা যায় প্রচন্ড শীতের মধ্যে রোগীদের ভিড় রয়েছে। ঠান্ডার সমস্যায় নারী, পুরুষ, বৃদ্ধ ও শিশুরা চিকিৎসা সেবা নিতে আসছেন। বিশেষ করে বৃদ্ধ ও শিশুদের উপস্থিতিতে বেশি দেখা গেছে। জয়নাল করিম (৬৮) ও করিম মুন্সি (৭০) কয়েকদিন ধরে শ্বাস কষ্টে ভুগছেন। তাই কমিউনিটি কিনিকে এসেছেন চিকিৎসার জন্য। তারা বলেন, এই কমিউনিটি কিনিকের ওষুধ খেয়েই আমাদের রোগ সারে। খুব বেশি সমস্যা না হলে এখান থেকেই পরিবারের সবাই চিকিৎসা নিয়ে থাকেন।

রিকশা চালক খোকন হাওলাদারের স্ত্রী হাজেরা বিবি তার ২ বছরের শিশু পুত্রকে নিয়ে এসেছেন চিকিৎসার জন্য। ছেলের জ্বরের চিকিৎসা ও ওষুধ বিনামূল্যে পেয়ে খুব খুশি সে। হাজেরা বলেন, গরিব মানুষের জন্য এই কিনিকই তাদের ভরশা। সবার পক্ষে যাতায়াত খরচ দিয়ে সদর হাসপাতালে যাওয়া সম্ভব হয়না।

জেলা সিভিল সার্জন ডা: রথীন্দ্রনাথ মজুমদার জানান, বর্তমানে কমিউনিটি কিনিকগুলোতে বহুমুখী সেবা প্রদান করা হয়। চিকিৎসা সেবা, স্বাস্থ্য শিক্ষা, বিভিন্ন বিষয় পরামর্শ, পরিকল্পনা সেবা, পুষ্টি বিষয়ক জ্ঞান, গর্ভবতী মায়েদের সেবা, শিশু ও মহিলাদের বিভিন্ন টিকাসহ মোট ৩১ ধরনের ওষুধ এখান থেকে বিনামূল্যে বিতরণ করা হয। এছাড়া নির্দিষ্ট এলাকায় যক্ষা রোগীদের নিয়মিত তদারকি করা হয়। এখানকার চিকিৎসা প্রদানের আন্তরিকতায় মানুষের মধ্যেও আস্থার ভাব তৈরি হয়েছে বলে ।

আজকের প্রশ্ন

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে বিএনপির নেতারা মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি করছে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন?