শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৭, ১১:২০:৪৮

প্রেম প্রত্যাখ্যান করায়....

প্রেম প্রত্যাখ্যান করায়....

বরিশাল: প্রেম প্রত্যাখ্যান করায় বরিশালের উজিরপুরে শান্তা নামে এক কলেজছাত্রী বখাটের ছুরিকাঘাতের শিকার হয়েছেন।
শান্তা বিএম কলেজের রাস্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ছাত্রী।
শনিবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার ধামুরা বাজারের ভ্যান স্ট্যান্ডে আলাল নামে এক বখাটের ছুরিকাঘাতের শিকার হন ওই ছাত্রী।
জানা গেছে, বিএম কলেজে বিকেলে প্রথম বর্ষের পরীক্ষা শেষ করে বাসে ধামুরা বন্দরে নেমে বাড়ি ফেরার পথে বখাটে আলালের হামলার শিকার হয় শান্তা। পরে স্থানীয়রা বখাটেকে ধাওয়া করলে সে পালিয়ে যায়। স্থানীয়দের সহায়তায় পুলিশ শান্তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যায়। সেখানে তার মুখমন্ডলে ১৩টি সেলাই দিয়ে তাকে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেলে প্রেরণ করে পুলিশ।  
শেরেই বাংলা মেডিকেলের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. সুব্রত পাল জানান, তার মুখমন্ডলে সেলাই দিয়ে তাকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। তার অবস্থা স্থিতিশীল। তাকে মহিলা সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।  
আহতের মা নিলুফা বেগম ও চাচা মো. লিটন জানান, বখাটে আলাল বিভিন্ন সময়ে শান্তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিত।
তাকে বোঝানো হলেও সে কারো কথা শুনতো না। তার প্রেম প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায়  শনিবার রাতে ধামুরা বাজারে ভ্যান স্ট্যান্ডে তাকে কুপিয়ে আহত করে আলাল। তারা এই ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন।  
এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী উজিরপুর থানার এসআই জসিম বলেন, শান্তা আগৈলঝাড়া উপজেলার সীমান্তবর্তী রতণপুর গ্রামের মৃত মোস্তফা সরদারের মেয়ে। ৩ বছর আগে থেকে পার্শ্ববর্তী উজিরপুর উপজেলার কাংশি গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে আলালের সাথে তার ঘনিষ্ট সম্পর্ক হয়।
মাধ্যমিকের গন্ডি না পেরোনো আলাল ঢাকায় একটি চাইনিজ রেস্তোরায় বেয়ারার কাজ করে শান্তার পরিবারকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করতো। শান্ত ইতোপূর্বে ৩ বার আলালের বাড়ি গিয়েছিল। তাদের মধ্যে পারিবারিকভাবে বিয়ের কথাও হয়েছিলো। কিন্তু শান্তা বিএম কলেজে অনার্সে ভর্তি হওয়ার পরই তাদের সম্পর্কে ছেদ পড়ে। ইদানিং আলালের সন্দেহ হচ্ছিলো শান্তার সাথে অন্য কারোর সম্পর্ক আছে। এই ক্ষোভ-হতাশা থেকে সে ওই ছাত্রীকে ছুরিকাঘাত করতে পারে।  
বরিশালের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন জানান, পুলিশ তাকে গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান শুরু করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের সহ কঠোর আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।  

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘সরকার খালেদা জিয়ার রায় নির্ধারণ করে রেখেছে।’ তার এই বক্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?