শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ২৪ জুন, ২০১৮, ০৩:২৯:৩৬

টাকার চিন্তা আপনার যৌনজীবনে প্রভাব ফেলতে পারে

টাকার চিন্তা আপনার যৌনজীবনে প্রভাব ফেলতে পারে

লাইফস্টাইল ডেস্ক : কথায় আছে ‘অর্থই সব অনর্থের মূল’। আবার এই অর্থই আপনাকে চিন্তামুক্ত রাখতে পারে। সম্প্রতি নর্থইস্টার্ন মিউচুয়াল ফাউন্ডের একটি গবেষণায় জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রর বেশিরভাগ প্রাপ্তবয়স্কদের কাছে টাকার চিন্তাটাই বেশি। আর এই টাকার জন্য চিন্তা করতে থাকলে তা একসময় ভালোবাসার মানুষের উপরও প্রভাব ফেলে।

গবেষণা থেকে জানা গেছে, প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৪ জনেরই টাকার চিন্তা ভালোবাসার মানুষের উপর প্রভাব ফেলে। প্রতি ৫ জনের মধ্যে ১ জন বলেন, মাসে একবার হলেও তাদের ভালোবাসার মানুষের সঙ্গে টাকার জন্য দুজনের মধ্যে মতভেদ দেখা যায়।

টাকার চিন্তাতেই ভালোবাসার মানুষের সঙ্গে শুধু মনোমালিন্যই হয় না। এটা আপনার যৌনজীবন ধ্বংস করে দিতে পারে এমনকি আপনার সঙ্গীরও।

আজরা আলিস একজন সমাজ কর্মী। তিনি ক্যালিফোর্নিয়ায় বসবাস করেন। তিনি বলেন, ‘দীর্ঘস্থায়ী স্ট্রেস একজন মানুষের যৌনজীবনের পুরো আনন্দ নষ্ট করে দিতে পারে। এমনকি একজন মানুষ তার আর্থিক ভবিষ্যত সম্পর্কে এতটাই উদ্বিগ্ন থাকে যে সেটি তার যৌন জীবনেও প্রভাব ফেলে।’

এ ছাড়া প্রতিদিন আপনি যদি অফিসে বেশি সময় ধরে কাজ করেন অথবা বেশি সময় ধরে আর্থিক বিষয় নিয়ে চিন্তা করেন এর প্রভাবও যৌন জীবনে পরতে পারে।

আজরা এ বিষয়ে আরও বলেন, ‘অনেক সময় অফিসে দীর্ঘ সময় কাজ করার কারণে একজন ব্যক্তির পরিকল্পনা ঠিক থাকে না। এ ছাড়া অফিসে বেশি সময় ধরে কাজ করলে একজন ব্যক্তির মনোবল এবং শক্তি দুটোরই ঘাটতি দেখা দিতে পারে যা আপনার মন মানসিকতা নষ্ট করে দিতে পারে।’

আর্থিক চাপ উপশম করার উপায়

প্রথমে একজন ব্যক্তির আর্থিক চাপ উপশম করার উপায় খুঁজে বের করতে হবে। এ সম্পর্কে ফ্লোরিডার ট্যাম্পা বে কাউন্সিলিং সার্ভিসের একজন চিকিৎসক ড. ব্রায়ান ডোনে কিছু পরামর্শ দিয়েছেন।


কিছুক্ষণ ঘুমানো

এ বিষয়ে ব্রায়ান বলেন, ‘ঘুমের অভাবে কর্টিসল হরমোনের পরিমাণ বেড়ে যায় যাকে স্ট্রেস হরমোন বলা হয়। অল্প সময়ের ঘুম একজন ব্যক্তির কর্টিসল হরমোনে মাত্রা ঠিক রাখতে পারে।’

স্বাস্থ্যকর অভ্যাস

শরীর এবং মন ভালো রাখার জন্য প্রতিটি ব্যক্তির কিছু স্বাস্থকর অভ্যাস থাকা প্রয়োজন। ব্রায়ান ডোনে এ সম্পর্কে বলেন, ‘বাইরে কোথাও ঘুরতে যাওয়া বা বাগানে কাজ করা কিনবা সাঁতার কাটার মতো কাজগুলো মানসিক চাপ কমিয়ে দেয় অনেক খানি।’

সঠিক সময়ে খাওয়া-দাওয়া

চিন্তামুক্ত থাকার জন্য নিয়মিত ভালো খাবার ও সময় মতো খাবার গ্রহণ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ। নিয়মমাফিক খাওয়া-দাওয়া মানসিক চাপ অনেকাংশেই কমিয়ে দেয়।

এ ছাড়া হালকা ব্যায়ামও আপনাকে স্ট্রেস মুক্ত রাখতে সাহায্য করে বলে জানান ব্রায়ান।

কথা বলা

আপনার যদি আর্থিক সমস্যা থাকে তাহলে আপনি তা কাছের কোনো মানুষের সঙ্গে শেয়ার করুন। এতে মানসিক চাপ অনেকটােই কমে যায়।


বেশি বেশি যৌনমিলন

একজন মানুষের অনেক সময় সেক্স করতে ভালো নাও লাগতে পারে। কিন্তু সেক্স করার পর তা ভালো অনুভূতি দেয়। ফলে আপনার মানসিক চাপ অনেকটাই কমে যেতে পারে।

সূত্র: হাফিংটন পোস্ট

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি জাতিসংঘে যাওয়ায় সরকার আতঙ্কিত - ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?