মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ১৩ জুলাই, ২০১৮, ১০:০৭:১৮

বিয়ের আগে ফিগার ঠিক রাখতে এগুলো করেছেন কি?

বিয়ের আগে ফিগার ঠিক রাখতে এগুলো করেছেন কি?

লাইফস্টাইল ডেস্ক : কথায় বলে, যার বিয়ে তার হুঁশ নেই, পাড়াপড়শির ঘুম নেই। আজকাল এই কথাটি পুরোপুরি সত্যি। বিয়ের জন্য তোড়জোড় বহু আগে থেকে শুরু হয়ে যায়। কিন্তু স্বয়ং পাত্রীর হুঁশ ফেরে সপ্তাহ খানেক আগে। তার আগে তো কাজের চাপে তার প্রাণ শেষ। আর যখন হুঁশ ফেরে তখন বিউটি পার্লার আর কেনাকাটা করতে গিয়েই সময় বেরিয়ে যায়। দেহের গড়নের প্রতি নজর থাকে না। কিন্তু বিয়েতে ওটাও তো দরকারী। নাহলে উদ্ভব ফিগারে গোটা মেকআপটাই মাটি হয়ে যাবে। তাই বিয়ের কয়েক সপ্তাহ আগে থেকেই তার প্রস্তুতি শুরু করুন।


বিশ মিনিট আগে ঘুম থেকে উঠুন:
রোজ যখন ঘুম থেকে ওঠেন, চেষ্টা করুন তার মিনিট কুড়ি আগে ঘুম থেকে উঠতে। ৩ মিনিট ওয়ার্ম আপ করুন। তারপর এক থেক দেড় মিনিট বিশ্রাম নিন। সাত থেকে আটবার এমন করতে থাকুন। এর ফলে আপনি শুধু যে ফিট থাকবেন, তা নয়। সকালের বিশুদ্ধ আবহাওয়া আপনাকে সারাদিন চাঙ্গা রাখবে।

চা বানানোর সময়টুকুও নষ্ট করবেন না:
চায়ের পানি ফুটতেও তো ১০ মিনিট সময় লাগে। ওই সময়টা দাঁড়িয়ে না থেকে কাজে লাগান। খান কতক পুশ-আপ দিয়ে নিন। তাহলে সময়ও বাঁচল আর শরীরচর্চাও হল।

গাড়ি চালানোর সময়ও শরীরচর্চা চালান:
গাড়ি তো বসে বসে চালাবেন। তখনই ১০ সেকেন্ড নিজের অ্যাবসগুলিকে কসরত করান। এর ফলে পেশিরগুলির এক্সারসাইজ হবে।

সিঁড়ি দিয়ে উঠুন:
অফিসে বা বাড়িতে, উঁচুতলায় ওঠার জন্য লিফটের বদলে সিঁড়ি ব্যবহার করুন। সবসময় সম্ভব না হলেও, দিনে অন্তত একবার। এতে ভাল শরীরচর্চা হয়।

ফাঁকা সময় হাঁটুন:
কাজের মাঝে সময় পেলে একটু হেঁটে নিন। ধরুন, ১০ মিনিট আপনি চা বা কফির জন্য বিরতি নিলেন। ওই সময়টা অল্প হেঁটে নিন। পারলে একতলা সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করে নিন। কোনও কাজের কথা কারোর সঙ্গে বলতে হলে হাঁটতে হাঁটতে আলোচনা করুন। অফিসের ছাদ, করিডর, রাস্তা যেখানেই হোক, হাঁটুন।

চিবুকের যত্ন নিন:
ডাবল চিন থাকলে সতর্ক হোন। বিয়ের আগে এসব সরাতেই হবে। এর জন্য একটা সহজ উপায় রয়েছে। গলার কাছে চিবুক নামান। ৫ থেকে ১০ সেকেন্ড রাখুন। আবার তুলে নিন। নিয়মিত এই অভ্যাস করুন। দিনে অন্তত একঘণ্টা বা সারাদিনে অল্প অল্প করে এটি করতে থাকুন। সম্পূর্ণ যদি নাও হয়, এক্ষেত্রে কিছুটা মুক্তি ডাবল চিন থেকে পাওয়া যায়।

আজকের প্রশ্ন

খুলনা সিটি নির্বাচনের ভোটকে ‘প্রহসন’ বলেছেন বিএনপি ও বামপন্থিরা। আপনি কি একমত?