রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, ০৪:৫৫:২৯

৩৮৪৩ কোটি টাকার ফোরজি স্পেকট্রাম বিক্রি

৩৮৪৩ কোটি টাকার ফোরজি স্পেকট্রাম বিক্রি

ঢাকা : ফোরজি তরঙ্গ নিলাম করেছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি। দুই মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক নিলাম থেকে তিন হাজার ৮৪৩ কোটি টাকার স্পেকট্রাম কিনেছে। ১০ শতাংশ ভ্যাট ধরলে সরকারের এ খাত থেকে আয় করবে চার হাজার ২২৭ কোটি টাকা।

আজ মঙ্গলবার ঢাকা ক্লাবে এ নিলাম অনুষ্ঠিত হয়। টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে নিলাম অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া টু জি ও থ্রি জি সেবার জন্য বরাদ্দ করা তরঙ্গে প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা দিয়ে (যাতে ওই তরঙ্গ যে কোনো প্রযুক্তিতে ব্যবহার করা যায়) গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক ও রবির কাছ থেকে সরকার পেয়েছে ১ হাজার ৪৪৫ দশমিক ০৮ কোটি টাকা।

দেশের চার অপারেটর ফোর জি তরঙ্গ নিলামে থাকার আবেদন করলেও শেষ পর্যন্ত নিলামে অংশ নিয়েছে শুধু গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম অপারেটর রবি তাদের হাতে থাকা তরঙ্গ প্রযুক্তি নিরপেক্ষতায় রূপান্তর করে ফোর জি সেবা দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে।

গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক দুই ব্যান্ড থেকে ১৫ দশমিক ৬ মেগাহার্ডজ স্পেকট্রাম কিনেছে। আর ৯০০ ব্যান্ডে কোনো ক্রেতাই ছিল না।

দুই ঘণ্টার কম সময়ের নিলামে গ্রামীণফোন ১৮০০ ব্যান্ড থেকে ৫ মেগাহার্ডজ এবং বাংলালিংক এ ব্যান্ড থেকে ৫ দশমিক ৬ মেগাহার্ডজ ও ২১০০ ব্যান্ড থেকে ৫ মেগাহার্ডজ স্পেকট্রাম কিনেছে।

২১০০ ব্যান্ডের প্রতি মেগাহার্ডজ স্পেকট্রামের ভিত্তি মূল্য ধরা হয় ২ কোটি ৭০ লাখ ডলার। আর ১৮০০ ব্যান্ডের ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ৩ কোটি ডলার করে। এর ওপরের দরেই স্পেকট্রাম কেনে অপারেটর দুইটি।

এর আগে, রোববার নিলামের মহড়ায় বাংলালিংক ২১০০ ব্যান্ড থেকে ১০ মেগাহার্ডজ এবং ১৮০০ ব্যান্ড থেকে দুই ভাগে আরো নয় মেগাহার্ডজ স্পেকট্রাম নিয়েছে। অন্যদিকে গ্রামীণফোন শুধু ১৮০০ ব্যান্ডে ১০ মেগাহার্ডজ স্পেকট্রাম কেনার মহড়া দিয়েছে। রবি ও টেলিটক বাড়তি কোনো স্পেকট্রাম কিনবে না বলে আগেই বিটিআরসিকে জানিয়েছিল।

মোবাইল ফোন অপারেটরদের ১৮০০ ও ২১০০ ব্যান্ডের তরঙ্গ বরাদ্দ দিতে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি এ নিলামের আয়োজন করেছে। কমিশন মূলত তিনটি ব্যান্ডের স্পেকট্রামের জন্য নিলাম আহবান করলেও ৯০০ ব্যান্ডের স্পেকট্রামের কোনো আগ্রহী ক্রেতা পাওয়া যায়নি। ফলে ওই ব্যান্ডের জন্যে কোনো নিলাম হচ্ছে না। এই স্পেকট্রামের নিলাম হওয়ার পর অপারেটররা তাদের হাতে থাকা বিদ্যমান স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা নিয়ে তবেই ফোরজি সেবা চালু করবে। সেটি হতে এই মাসের শেষ পর্যন্ত লেগে যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আর ২০ ফেব্রুয়ারি অপারেটরগুলোকে লাইসেন্স দেবে কমিশন।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘সরকার খালেদা জিয়ার রায় নির্ধারণ করে রেখেছে।’ তার এই বক্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?