শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ১০ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৫:৩৩:৫৩

‘তোদের হত্যা করবো, পরে নিজে মরে যাব’

‘তোদের হত্যা করবো, পরে নিজে মরে যাব’

ঢাকা : ডিআইজি মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে এক নারীকে জোর করে বিয়ে ও তার উপর নির্মম নির্যাতনের সংবাদ প্রকাশ ও প্রচারের জের ধরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন (ক্র্যাব) এর সদস্য, ক্র্যাব বহুমুখী সমবায় সমিতির সভাপতি ও দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার সিনিয়র রিপোর্টার নেসারুল হক খোকন এবং যমুনা টেলিভিশনের বিশেষ প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ তুহিনকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছেন তিনি।

ডিআইজি ভুক্তভোগি তরুণীকে মুঠোফোনে বলেন, তোদের জন্য আমার আজ এই অবস্থা, তোদের গুলি করে মেরে আমি নিজে আত্মহত্যা করবো।

এঘটনায় বুধবার (১০ জানুয়ারি) এক বিবৃতিতে ক্র্যাব সভাপতি আবু সালেহ আকন ও সাধারণ সম্পাদক সরোয়ার আলম ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক উল্লেখ করে এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ‘সংবাদ প্রচার-প্রকাশ করায় পুলিশের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমান মঙ্গলবার (০৯ জানুয়ারি) রাতে দু’জন পেশাদার সাংবাদিককে ফোন করে গুলি করে হত্যার যে হুমকি দিয়েছেন, তা শুধু অপেশাদার আচরণই নয়- রীতিমতো ক্ষমতার অপব্যবহার, ধৃষ্টতা এবং সীমা লংঘনের সামিল। বিষয়টি প্রচলিত আইনে ফৌজদারি অপরাধ। এটি অত্যন্ত উদ্বেগের বিষয়।

বিজ্ঞপ্তিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকরা যে পুলিশি হয়রানির শিকার হচ্ছেন- এ ঘটনা তার আরেকটি জ্বলন্ত প্রমাণ।’ এছাড়াও যে দুই সাংবাদিককে হুমকি দেওয়া হয়েছে, তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ডিআইজি মিজানুর রহমানের লাইসেন্সকৃত ব্যক্তিগত পিস্তলটি পুলিশের হেফাজতে নেওয়ারী দাবি জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ডিআইজি মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে এক নারীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে জোর করে বিয়ে এবং ওই নারীর উপর নির্মম নির্যাতন করার বিষয়ে দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা টেলিভিশনে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ডিআইজি ওই সাংবাদিকদ্বয়কে প্রাণনাশের হুমকি দেন এবং তাদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন।

 

আজকের প্রশ্ন

শিক্ষা অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সহনীয় মাত্রায় ঘুষ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। জাতির জন্য এমন পরামর্শ ভয়ানক নয় কি?