মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৫:২৫:১০

ডিসেম্বরে খাদ্যের মূল্য সূচক কমেছে

ডিসেম্বরে খাদ্যের মূল্য সূচক কমেছে

ঢাকা : সদ্য শেষ হওয়া ডিসেম্বর মাসে বিশ্ববাজারে সার্বিকভাবে খাদ্যপণ্যের দাম কমেছে। আলোচ্য মাসে বিশ্ব খাদ্য মূল্যের গড় সূচক অবস্থান করছে ১৬৯ দশমিক ৮ পয়েন্টে।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) হিসাবে নভেম্বর মাসের তুলনায় কমেছে ৩ দশমিক ৩ শতাংশ বা ৫ দশমিক ৮ পয়েন্ট।

এফএও বলছে, আলোচ্য বিশ্ববাজারে সময়ে দুধ ও দুগ্ধজাত পণ্য, ভোজ্য তেল ও চিনির দাম কমার প্রভাবেই সার্বিক খাদ্য মূল্য সূচক কমেছে।

এদিকে মাস ব্যবধানে সার্বিক খাদ্য মূল্য সূচক কমলেও বছর ব্যবধানে খাদ্য মূলক সূচক বেড়েছে। ২০১৭ সাল জুড়ে খাদ্য মূল্য সূচকের গড় দাঁড়িয়েছে ১৭৪ দশমিক ৬ পয়েন্টে। যা ২০১৬ সালের তুলনায় ৮ দশমিক ৮ শতাংশ বেশি বলে উল্লেখ করেছে এফএও।

এফও বলছে ২০১৭ সালের খাদ্য পণ্যের মূল্য সূচক ২০১৪ সালের পরে সর্বোচ্চ পয়েন্টে অবস্থান করেছে।

তবে ২০১১ সালের তুলনায় তা প্রায় ২৪ শতাংশের বেশি কম। ২০১১ সালে খাদ্য পণ্যের মূল্য সূচক ছিল ২৩০ পয়েন্টে।

বিশ্বব্যাপী ৫ ধরনের পণ্যের দাম নিয়ে জরিপ চালায় এএফও। সংস্থাটি সর্বশেষ প্রতিবেদনে বলছে, আলোচ্য মাসে দুগ্ধজাত পণ্যের দাম কমেছে ৪ দশমিক ৯ শতাংশ। তবে গতবছরের একই সময়ের তুলনায় আলোচ্য পণ্যের দাম ৯ দশমিক ৬ শতাংশ বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ওই প্রতিবেদনে দেখা যায়, আলোচ্য মাসে চিনির মূল্য সূচক কমেছে। নভেম্বর মাসের তুলনায় ডিসেম্বরে এই পণ্যটির মূল্য সূচক ৮ দশমিক ৬ পয়ন্টে বা ৪ দশমিক ১ শতাংশ কমেছে।

ভোজ্য তেলের মূল্য সূচক নভেম্বর মাসের তুলনায় ডিসেম্বরে কমেছে ৯ দশমিক ৬ পয়েন্ট বা ৫ দশমিক ৬ শতাংশ। যা সর্বশেষ ৫ মাসের মধ্যে সবচেয়ে কম।

ডিসেম্বর মাসে বিশ্ববাজারে দানা জাতীয় খাদ্যের মূল্য সূচক গতমাসের তুলনায় কিছুটা কমেছে। তা এখন ১৫২ দশমিক ৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এছাড়া আলোচ্য সময়ে মাংসের দামেও ভাটা পড়েছে বিশ্ববাজারে। নভেম্বরের তুলনায় ডিসেম্বরে এই পণ্যটির মূল্য সূচক ১৭১ দশমিক ৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

 

আজকের প্রশ্ন

শিক্ষা অধিদফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সহনীয় মাত্রায় ঘুষ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। জাতির জন্য এমন পরামর্শ ভয়ানক নয় কি?