মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ০৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ০৬:১১:০৮

চলছে মার্সেল ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৩

চলছে মার্সেল ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৩

ঢাকা : চলছে মার্সেলের ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৩। এর আওতায় মার্সেল পণ্য কিনে রেজিস্টেশন করলেই ক্রেতারা পেতে পারেন নতুন গাড়ি, মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, এলইডি টিভিসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি অথবা নিশ্চিত ক্যাশব্যাক।
অনলাইনে দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা প্রদানের উদ্যোগ বাস্তবায়নে এই ক্যাম্পেইন চলছে। এর আগে চলতি বছরের এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত এবং জুলাই থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত পরিচালিত ক্যাম্পেইনে গ্রাহকদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়া পাওয়ায় শুরু হয়েছে সিজন থ্রি।

কর্তৃপক্ষ জানায়, গ্রাহক এসব সুবিধা পাবেন মার্সেলের ফ্রিজ, টিভি ও এসি কিনলে। মার্সেলের যে কোনো শোরুম থেকে ক্রেতারা প্রতিবার ফ্রিজ, টিভি ও এসি বা এয়ার কন্ডিশনার কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ফিরতি এসএমএস এ ফ্রি পণ্য অথবা ক্যাশব্যাকের তথ্য পাবেন।  ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৩ কার্যকর হয়েছে চলতি মাসের প্রথম দিন থেকেই।

কাস্টমার ডাটাবেজ তৈরির মাধ্যমে বিক্রয়োত্তর সেবাকে অনলাইন কার্যক্রমের আওতায় আনতে গত বছরের অক্টোবর থেকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত সারা দেশে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন ক্যাম্পেইন চালায় মার্সেল। ওই সময়ে পণ্য কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতাদের দেয়া হয়েছে ৩’শ থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত ক্যাশ ভাউচার। ফলে, সারা দেশে ব্যাপক সাড়া ফেলে মার্সেলের এই ক্যাম্পেইন।

গ্রাহকদের আগ্রহের কথা বিবেচনা করে চলতি বছরের এপ্রিল থেকে জুন মাস পর্যন্ত ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালায় মার্সেল। সেসময় গ্রাহকরা মার্সেল ফ্রিজ, টিভি ও এসি কিনে রেজিস্ট্রেশন করে পেয়েছেন আমেরিকা ও রাশিয়া ভ্রমণের ফ্রি বিমান টিকিট, ফ্রি পণ্য অথবা বিভিন্ন অঙ্কের ক্যাশব্যাক। এরপর চালানো হয় ঈদ মেগা ক্যাম্পেইন।

মার্সেলের হেড অব সেলস ড. মো. সাখাওয়াৎ হোসেন বলেন, ডিজিটাল ক্যাম্পেইন ইতোমধ্যে ব্যাপক গ্রাহকপ্রিয়তা পেয়েছে। আগে মানুষের মধ্যে রেজিস্ট্রেশনের প্রবণতা কম ছিলো। ক্যাম্পেইন চালানোর ফলে গ্রাহকদের ডাটাবেজ তৈরি সহজ হচ্ছে। অন্যদিকে পণ্য বিক্রি বেড়েছে। পণ্য রেজিস্ট্রেশনে গ্রাহকদের এই উৎসাহ ধরে রাখতেই শুরু করা হয়েছে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৩। তার প্রত্যাশা- গত দুই বারের মতো এবারও ক্যাম্পেইন সফল হবে।

মার্সেল শোরুম থেকে পণ্য কেনার পর গ্রাহক তার মোবাইল ফোন থেকে এসএমএস পাঠিয়ে তা রেজিস্ট্রেশন করে নিতে পারবেন। এ প্রক্রিয়ায় গ্রাহকের নাম, ফোন নম্বর এবং ক্রয়কৃত পণ্যের মডেল নম্বরসহ বিস্তারিত মার্সেলের সার্ভারে সংরক্ষণ করা হয়। এর ফলে, ওয়ারেন্টি কার্ড হারিয়ে ফেললেও দেশের যেকোনো মার্সেল সার্ভিস সেন্টার থেকে কাঙ্খিত সেবা নিতে পারবেন গ্রাহক। সার্ভিস সেন্টারের প্রতিনিধিরাও গ্রাহকের ফিডব্যাক জানতে পারবেন।

উল্লেখ্য, গাজীপুরের চন্দ্রায় মার্সেলের রয়েছে নিজস্ব উৎপাদন কারখানা। সেখানে বিশ্বের লেটেস্ট সব প্রযুক্তি, কাঁচামাল ও মেশিনারিজের সমন্বয়ে তৈরি হচ্ছে মার্সেল ব্র্যান্ডের উচ্চ গুণগতমানের পণ্য। এই দেশীয় ব্র্যান্ডের পণ্য সম্ভারে রয়েছে ফ্রস্ট ও ননফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর, ফ্রিজার, এলইডি টেলিভিশন, এয়ার কন্ডিশনার, ব্লেন্ডার, রাইস কুকার, ইন্ডাকশন কুকার, গ্যাস স্টোভ, সিলিং রিচার্জেবল ও ওয়াল ফ্যান, ইলেকট্রিক সুইস-সকেট ইত্যাদি।
এসব পণ্যের উৎপাদন প্রক্রিয়ায় উচ্চ গুণগতমান নিশ্চিত করার প্রতি সর্বাধিক গুরুত্ব দেয় মার্সেল। ফলে, ফ্রিজে এক বছরের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টির পাশাপাশি এলইডি টেলিভিশন ও এসিতে ৬ মাসের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি রয়েছে।

 

 

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি জাতিসংঘে যাওয়ায় সরকার আতঙ্কিত - ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?