বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭, ১১:০৯:৫৬

রাজনৈতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস দিলেন ড. ইউনূস

রাজনৈতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস দিলেন ড. ইউনূস

ঢাকা: বাংলাদেশে আবার রাজনৈতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস দিয়েছেন শান্তিতে নোবেল জয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস। গ্রামীণ আমেরিকার ১০ বছর পূর্তি উপলক্ষে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সফরে গিয়ে তিনি মার্কিন কূটনীতিকদের এই অভিমত ব্যক্ত করেছেন। দক্ষিণ এশীয় ককাসের কয়েকজন সিনেটর ড. ইউনূসকে চায়ের দাওয়াত দিয়েছিল। যেখানে তিনি বলেছেন, ‘আগামী নির্বাচনের আগে পরে ভয়াবহ রাজনৈতিক সহিংসতা হবে বাংলাদেশে। এটি বাংলাদেশের অর্থনীতিকে নাজুক করে দিবে।’ তিনি মার্কিন সিনেটরদের সতর্ক করে দিয়েছেন, ‘ব্যবসা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ওই সময়টা যেন বেছে না নেওয়া হয়।’
গত ২৩ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কের মেট্রোপলিটন মিউজিয়াম অব আর্টে গ্রামীন আমেরিকার এক দশক পূর্তি উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে ড. ইউনূসকে আজীবন সম্মাননা দেওয়া হয়। ওই অনুষ্ঠানে জানানো হয় ‘গ্রামীন আমেরিকা’ ১০ বছরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ১২টি শহরে এক লাখ নারীকে ক্ষুদ্র ঋণ দিয়েছে যেখানে ঋণ পরিশোধের হার ৯৯ দশমিক ৬ ভাগ। অনুষ্ঠানে উল্লসিত ড. ইউনূস ‘ক্ষুদ্র ঋণে’র জন্মস্থান বাংলাদেশে ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমের সাম্প্রতিক অবস্থা নিয়ে হতাশ প্রকাশ করেন, ‘তিনি গ্রামীণ ব্যাংককে নেতৃত্বশূন্য করে এতিম করে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন।

এখানেই তিনি মার্কিন কয়েকজন প্রভাবশালী সিনেটরকে বাংলাদেশের ভবিষ্যত নিয়ে কথা বলেন, পরে তাঁকে দক্ষিণ এশিয়া ককাসে চায়ের আমন্ত্রণ জানানো হয়। যেখানে তিনি বলেন, ‘একটি দল জোর করে ক্ষমতায় থাকতে চায়, অন্য একটি জোর করে ক্ষমতা দখল করতে চায়। এই বল প্রয়োগের সংস্কৃতির কারণে প্রতিবার নির্বাচনের আগে বাংলাদেশের পরিস্থিতি সহিংস হয়ে উঠে।’ এবার রাজনৈতিক পরিস্থিতি আরও সহিংস হয়ে উঠবে বলে ডঃ ইউনূস ভবিষ্যতবাণী করেছেন।
ড. ইউনূস সহিংসতা থেকে উত্তরনের জন্য রাজনৈতিক সংলাপের ওপর গুরুত্ব আরোপ করে বলেছেন, ‘এটা রাজনৈতিক দলগুলো নিজেরা করবে না, যদি না তাঁদের বাইরে থেকে প্রচন্ড চাপ দেওয়া না হয়।তিনি সিনেটরদের বিবাদমান রাজনৈতিক দলগুলোকে আলোচনার টেবিলে বসানোর জন্য এখন থেকেই উদ্যোগ গ্রহণের আহ্বান জানান। 
বা:ই:
প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি জাতিসংঘে যাওয়ায় সরকার আতঙ্কিত - ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?