রবিবার, ২২ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০১৮, ১১:১২:২৮

আল্লাহু আকবর ধ্বনিতে মুখর ইজতেমা ময়দান

আল্লাহু আকবর ধ্বনিতে মুখর ইজতেমা ময়দান

টঙ্গী : টঙ্গীর তুরাগপাড়ের বিশ্ব ইজতেমা ময়দান দেশ-বিদেশের লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমানের উপস্থিতিতে ইবাদত বন্দেগি, জিকির আসকার আর আল্লাহু আকবর ধ্বনিতে মুখর হয়ে উঠেছে ।

আজ শনিবার ইজতেমার দ্বিতীয় দিন তুরাগ তীরে ইজতেমা মাঠে লাখ লাখ মুসল্লির উপস্থিতিতে চলছে পবিত্র কোরআন হাদিসের আলোকে বয়ান।

ইজতেমা সূত্রে জানা যায়, শনিবার বাদ ফজর বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মো. নূরুর রহমান। এছাড়া আজ আরও বয়ান করবেন বাংলাদেশের মাওলানা ড. মো. জাহাদ ও মাওলানা ফারুক হোসেন। আজ দ্বিতীয় দিনে হেদায়েত ও তাশকিলের বয়ান হবে।

দু’দিন ধরে ইজতেমা মাঠে সার্বক্ষণিক ইবাদত-বন্দেগিতে মগ্ন রয়েছেন লাখ লাখ দেশি-বিদেশি মুসল্লি। প্রতিদিন ফজর থেকে এশা পর্যন্ত ইজতেমা মাঠে ঈমান, আমল, আখলাক ও দ্বীনের পথে মেহনতের ওপর আম বয়ান অনুষ্ঠিত হচ্ছে। শনিবার বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় দিনে দেশ-বিদেশ থেকে আগত মুরুব্বিরা তাবলিগের ছয় ওছুলের মধ্যে দাওয়াতে দ্বীনের মেহনতের ওপর গুরুত্বারোপ করে বয়ান করছেন।

বয়ানে তারা বলেন, মোহতারাম ভাই ও দোস্ত বুজুর্গ, আল্লাহ তায়ালা আপনাকে আমাকে দুনিয়াতে পাঠিয়েছেন এবং আল্লাহ তায়ালা এটা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, দুনিয়াতে যে একবার আসবে তাকে মৃত্যুবরণ করতে হবে। আল্লাহপাকের এ সিদ্ধান্তের কোনো পরিবর্তন হবে না। দুনিয়া হচ্ছে ধোঁকার ঘর, এ দুনিয়া হচ্ছে ধোঁকার জীবন। মিছে এ দুনিয়ার আরাম-আয়েসের কথা ভুলে গিয়ে আখেরাতের কথা চিন্তা করুন।

উত্তরের হিমেল হাওয়া আর কনকনে শীত উপেক্ষা করে লাখো মুসল্লি বয়ান, তাশকিল, তাসবিহ-তাহলিলে দিন কাটাচ্ছেন। তবে তীব্র শীতের কারণে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া মুসল্লিদের প্যান্ডেলের বাইরে যেতে দেখা যায়নি। শীত বস্ত্র মুড়ি দিয়ে ইজতেমায়ী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন তারা।

রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হবে। ১৯ জানুয়ারি শুরু হবে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। দ্বিতীয় পর্বে যোগ দেবেন দেশের ১৬টি জেলার মুসল্লিরা।

এই বিভাগের আরও খবর

  আমি জনগণের সেবক, সংবর্ধনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী

  নির্বাচন নিয়ে এমাজউদ্দীন আহমদের ৪ শর্ত

  প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে অভূতপূর্ব উন্নয়নের জন্যই সংবর্ধনা : কাদের

  নিজের গরু নিয়ে চলার সময় ভারতে মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যা

  নাগরিক সমাজের অনেকেই বিক্রি হয়ে গেছেন: সুজন সম্পাদক

  ইমরান খানকে জেতাতে ‘নির্বাচনের ফল সাজাচ্ছে’ সেনাবাহিনী

  গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি হামলায় ৪ ফিলিস্তিনি নিহত

  গণতন্ত্রের মাকে ছাড়া কোনও নির্বাচন হতে দেয়া হবে না

  মিসৌরিতে নৌকাডুবিতে একই পরিবারের ৯ জন নিহত

  ছয় লাখ বাংলাদেশি ‘আধুনিক দাস’

  যুক্তরাজ্যে গত বছর রেকর্ড সংখ্যক মুসলিম বিদ্বেষী হামলার ঘটনা ঘটেছে



আজকের প্রশ্ন