সোমবার, ১৬ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শুক্রবার, ২৫ মে, ২০১৮, ১১:১৫:১৩

চাঁদনীকে ডিভোর্স দিয়ে ‘ডিভোর্সিকে বিয়ে’ বাপ্পার

চাঁদনীকে ডিভোর্স দিয়ে ‘ডিভোর্সিকে বিয়ে’ বাপ্পার

বিনোদন ডেস্ক: হঠাৎই গণমাধ্যমে খবর এলো জনপ্রিয় কণ্ঠতারকা বাপ্পা মজুমদার আর নৃত্যশিল্পী, অভিনেত্রী চাঁদনীর বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। পাশাপাশি এ-ও জানা গেলো- সম্প্রতি আরেক অভিনেত্রী-উপস্থাপিকা তানিয়া হোসাইনের সঙ্গে বাপ্পার বাগদান সম্পন্ন হয়েছে। এর পরই তাদের নিয়ে শোবিজ পাড়ায় হইহুল্লোড় শুরু হয়। কারণ, তানিয়া হোসাইনও একজন ডিভোর্সি। ২০১০ সালে উপস্থাপক-পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাসের সঙ্গে তানিয়ার ছাড়াছাড়ি হয়। স্ত্রীকে ডিভোস দিয়ে আরেকজন ডিভোর্সিকে বিয়ে করে কতটা সুখি হতে পারবেন বাপ্পা এ নিয়েও চলছে কানাঘুষা।

এদিকে বিচ্ছেদ নিয়ে এরই মধ্যে চাঁদনী ও বাপ্পা- দুপক্ষেরই বক্তব্য পাওয়া গেছে। চাঁদনীর কথায় বাপ্পা ছিল তার স্বামী, কিন্তু প্রেমিক হয়ে উঠতে পারেনি সে। এর পর গতকাল দুপুরে নিজের ফেসবুক পেজে ডিভোর্স ও নতুন বাগদান নিয়ে স্ট্যাটাস দেন বাপ্পা। সেখানেই সব খোলাসা করেন তিনি।

সম্প্রতি ফেসবুকে বাগদানের আংটির ছবি শেয়ার করেন তানিয়া। তারপরই বাপ্পার সঙ্গে বিয়ের গুঞ্জন ওঠে। পরে বিষয়টি বাপ্পা ও তানিয়া দুজনই স্বীকার করেন।

বাপ্পা লিখেন, গত ৯ অক্টোবর ২০১৭ আমাদের ডিভোর্সের আইনি প্রক্রিয়া শুরু হয় আর শেষ হয় ৯ জানুয়ারি ২০১৮ তে বিবাহের সমাপ্তিতে। আর আমরা আলাদা ছিলাম তাও ১ বছরের একটু বেশি সময় ধরে।

চাঁদনী প্রসঙ্গে লেখেন, অনেক বছর একসাথে থেকে, থাকার চেষ্টা করে অবশেষে হার মানতে হয়েছে আমার আর চাঁদনীর। আমরা পারিনি আমাদের সংসার নিয়ে বাকি জীবন কাটাতে। কোনো অভিযোগ কিংবা অসম্মান আমার চাঁদনীর প্রতি নেই, এমনকি চাঁদনীর ও আমার প্রতি কোনো অসম্মানবোধ আছে বলে মনে করিনা। যা হয়েছে তা ভাগ্যের লিখন মনে করি।

ওই স্ট্যাটাসে বাপ্পা আরো বলেন, ‘তানিয়া আমার বন্ধু। দারুণ একজন বন্ধু। তানিয়ার সাথে আমার যোগাযোগ এবং ভালোলাগাও। এর সূত্র ধরেই অতিসম্প্রতি আমি আমার ভাবনা তানিয়াকে জানাই, তানিয়াও তার ভাবনা আমাকে জানায়। আমরা আমাদের পরিবারের সান্নিধ্য ছাড়া জীবনে চলতে চাই না।’

এমন খবরের পরও ডিভোর্সি চাঁদনী তানিয়ার সঙ্গে বাপ্পার বাগদানে তাদের নতুন জীবনের শুভকামনা জানিয়ে বলেছেন, ‘কোথাও না কোথাও মানুষ সুখ পেতেই চায়। আর সুখ যদি না পায় তাহলে মানুষের জীবন মানুষ বরবাদ করে দেয়। যেমন করছে অন্যরা। আমি টুঁ শব্দ করিনি। সত্য একদিন খোলাসা হবেই। আমি অনেক সহ্য করে এসেছি।’

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ২১ মার্চ ধানমন্ডির ২৭ সিয়ার্স রেস্টুরেন্টে আনুষ্ঠানিকভাবে বাপ্পা মজুমদার ও চাঁদনীর বাগদান হয়। বাপ্পা ও চাঁদনী ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের হলেও বাগদানের আগেই বাপ্পা ধর্মান্ত্মরিত হয়ে আহমেদ বাপ্পা মজুমদার হন। দুই পরিবারের সম্মতিতেই এই বাগদান সম্পন্ন হয়। পরে তাদের দুই পরিবারের উপস্থিতিতে বিয়ে সম্পন্ন হয়। অন্যদিকে ২০০৯ সালের ২০ জুন উপস্থাপক-পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাসকে বিয়ে করেন তানিয়া হোসাইন। বিয়ের এক বছরের মাথায় তাদের বিচ্ছেদ হয়।

 



আজকের প্রশ্ন