বুধবার, ১৮ জুলাই ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১০ জুলাই, ২০১৮, ০৫:৪৭:৩৯

বর্ষায় হবু মায়েরা সাবধান!

বর্ষায় হবু মায়েরা সাবধান!

স্বাস্থ্য ডেস্ক : বর্ষাকাল মানেই শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে একটু সাবধান থাকার সময়। এই সময় যদি প্রেগন্যান্ট হন তা হলে আপনাকে আরো বেশি সতর্ক থাকতেই হবে। যে কোনো রকম অসাবধানতা থেকেই বড় ইনফেকশনের ঝুঁকি থাকে এই সময়। বর্ষাকালে তাই খাওয়া দাওয়ার দিকে খেয়াল রাখার পাশাপাশি সাবধানতা ও পরিচ্ছন্নতার দিকেই নজর দিতে হবে। এই দিকগুলো একটু খেয়াল রাখুন।

পোশাক
ঘাম আর গরমে যেন কষ্ট না হয় তাই সুতির পোশাক পরুন। বৃষ্টিতে ভিজলেও যাতে শুকিয়ে যায়। এই সময় একটু আলগা পোশাক পরুন। যাতে ঘামে ভিজে বা বৃষ্টিতে ভিজলেও গায়ে সেঁটে না বসে। এতে ঠান্ডা লেগে যেতে পারে।

জুতো
এই সময় খালি পায়ে হাঁটবেন না। বাড়িতেও না। পায়ের পাতার মাধ্যমে জীবাণু শরীরে প্রবেশ করে। ঠিক তেমনই রবারের চটি পরা এড়িয়ে চলুন। রবারের চটিতে স্লিপ করার ঝুঁকি থাকে।

রাস্তার খাবার
এই সময় মুখরোচক খাবার খেতে ইচ্ছা হলেও রাস্তার খাবার একেবারেই এড়িয়ে চলুন। বর্ষাকালে রাস্তার খোলা খাবার, জল থেকে সংক্রমণের ঝুঁকি বে়ড়ে যায়। তাই চেনা দোকান হলেও এই সময়টায় বাইরে না খাওয়াই ভাল।
এই সময় খালি পায়ে হাঁটবেন না। বাড়িতেও না। পায়ের পাতার মাধ্যমে জীবাণু শরীরে প্রবেশ করে।

নিম
স্নানের জলে নিমপাতা দিয়ে স্নান খুব ভাল অ্যান্টিসেপটিক হিসেবে কাজ করে। সংক্রমণ থেকে দূরে থাকতে প্রেগন্যান্ট মহিলারা এই সময় রোজ নিম জলে স্নান করুন।

স্যানিটাইজ
যদি বৃষ্টিতে কখনও বেরোতে বাধ্য হন বা কোনও কারণে জমা জল পায়ে লাগে তা হলে বাড়ি ফিরেই ভাল করে হালকা গরম জলে হাত, পা ধুয়ে স্যানিটাইজ করে নিন। ভাল করে চোখ, মুখও ধুয়ে নিন। এর ফলে কনজাংটিভাইটিস বা অন্যান্য ইনফেকশন থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারবেন।

মশা
বর্ষা কালে মশার উপদ্রব বাড়ে। ম্যালেরিয়া বা ডেঙ্গির মতো অসুখে এই সময় আক্রান্ত হলে তা আপনার গর্ভস্থ সন্তানের জন্যও ক্ষতিকর হতে পারে। তাই রাতে ঘুমনোর সময় মশারি টাঙিয়ে ঘুমোন। ঘরের জানলায় মসকিউটো নেট লাগান যাতে দিনের বেলাও মশা না ঢুকতে পারে। একই ভাবে বাড়ির আশেপাশে জল জমতে দেবেন না।

পরিচ্ছন্নতা
ঘর, বাথরুম সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখুন। নোংরা থেকে যেন কোনও রকম ইনফেকশন না ছড়ায়। বাথরুম সব সময় শুকনো রাখুন। এই সময় ঘরে সোঁদা গন্ধ হয়। প্রেগন্যান্সিতে যেন অবসাদ না হয় তার জন্য ঘরে কর্পূর বা নিমের মতো এয়ার পিউরিফায়ার রাখতে পারেন।



আজকের প্রশ্ন