সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট, ২০১৮, ০৪:০০:৫৭

বিদেশি শ্রমিক নিতে মালয়েশিয়ায় নতুন নিয়ম

বিদেশি শ্রমিক নিতে মালয়েশিয়ায় নতুন নিয়ম

ঢাকা : বিদেশি শ্রমিক নিয়োগে নতুন নিয়ম চালু করতে চলেছে মালয়েশিয়া সরকার। এইসব নিয়ম সব দেশের জন্যই প্রযোজ্য হবে এবং সব লাইসেন্সধারী এজেন্টই শ্রমিক নেয়ার সুযোগ পাবে।

মালয়েশিয়ার ইংরেজি দৈনিক স্টার অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ গত মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা তুলে ধরেন।

ওই সংবাদ সম্মেলনে মাহাথির বলেন, অবৈধভাবে অবস্থানরত শ্রমিকদের নিয়ে তার দেশকে অনেক জটিলতা পোহাতে হচ্ছে। এ কারণে যেসব দেশ থেকে মালয়েশিয়া লোক নেয়, সব দেশের ক্ষেত্রেই এক নিয়ম চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়া বাংলাদেশের জনশক্তি রপ্তানির গুরুত্বপূর্ণ বাজার। সরকারি হিসাবে পাঁচ লাখের বেশি নিবন্ধিত বাংলাদেশি সেখানে বিভিন্ন পেশায় কাজ করেন; যদিও বাস্তবে এই সংখ্যা আরও বেশি বলে সংশ্লিষ্টদের ধারণা।

প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ জানান, নতুন ব্যবস্থা চালুর জন্য তার সরকার একটি ‘স্বাধীন’ কমিটি করে দেবে, যে কমিটি সার্বিক অবস্থা পর্যালোচনা করে সুপারিশ করবে।  

এছাড়া স্বরাষ্ট্র ও মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে আরেকটি যৌথ কমিটি করা হবে জানিয়ে মাহাথির বলেন, সরকারি পর্যায়ে শ্রমিক নেওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে এখন মালয়েশিয়ার যেমন চুক্তি আছে, নেপালের সঙ্গেও সেরকম একটি সমঝোতা স্মারক স্বক্ষরিত হবে শিগগিরই।

মালয়েশিয়া সরকার তাদের পাঁচটি খাতে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ের সমন্বয়ে ‘জিটুজি প্লাস’ পদ্ধতিতে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিতে রাজি হওয়ার পর ২০১৬ সালে ঢাকায় দুই দেশের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। পাঁচ বছর মেয়াদী এই চুক্তির আওতায় লোক পাঠানোর অনুমতি দেওয়া হয় ওই দশটি জনশক্তি রপ্তানিকারক এজেন্সিকে।

কিন্তু প্রবাসী এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর নেতৃত্বে মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগসাজশে একটি চক্র ওই দশ এজেন্সিকে নিয়ে সিন্ডিকেট করে শ্রমিকদের কাছ থেকে দুই বছরে অন্তত ২০০ কোটি রিঙ্গিত হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ ওঠার পর গত জুনে ওই ব্যবস্থা স্থগিত করেছে মালয়েশিয়া সরকার।

সূত্র: ইন্টারনেট



আজকের প্রশ্ন