বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ২৯ আগস্ট, ২০১৮, ০৮:১২:২২

সুবর্ণা হত্যায় সাংবাদিকদের উদ্বেগ

সুবর্ণা হত্যায় সাংবাদিকদের উদ্বেগ

ঢাকা: বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল ‘আনন্দ টিভি’র পাবনা প্রতিনিধি সুবর্ণা আক্তার নদীকে মঙ্গলবার রাতে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় পাবনা জার্নালিস্ট ফোরাম, ঢাকা (পিজেএফ) এবং পাবনায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

বুধবার সকালে পাবনা জার্নালিস্ট ফোরামের সভাপতি খায়রুজ্জামান কামাল ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম মওলা স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, পাবনায় কর্মরত আনন্দ টিভির সংবাদকর্মী সুবর্ণা নদীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় আমরা গভীরভাবে শোকাহত ও মর্মাহত।

এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে ঢাকাস্থ পাবনা জার্নালিস্ট ফোরাম, ঢাকা (পিজেএফ)। একই সঙ্গে পিজেএফ সুবর্ণা নদীর প্রকৃত খুনিদের খুঁজে বের করে অবিলম্বে গ্রেফতার ও খুনিদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবী জানিয়েছে।

এদিকে বুধবার দুপুরে পাবনা প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধনে সুবর্ণা হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন পাবনায় কর্মরত সংবাদকর্মীরা। এতে প্রায় শতাধিক সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি আব্দুল মতীন খান, সম্পাদক শহিদুর রহমান শহীন, প্রেসক্লাব সম্পাদক আঁখিনূর ইসলাম রেমন, সাবেক সম্পাদক এ বি এম ফজলুর রহমান, সময় টিভির প্রতিনিধি এস এ আসাদ প্রমুখ।

এসময় বক্তরা প্রশাসনকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে প্রকৃত জড়িতদের গ্রেফতার করে দৃষ্টানন্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে আহ্বান জানান। নতুবা বৃহত্তর কর্মসূচি দেওয়ার কথা বলে হুঁশিয়ারি দেন।

সুবর্ণা পাবনার একদন্ত ইউনিয়নের বাড়ইপাড়া গ্রামের মৃত আয়েব আলীর মেয়ে। তার পাঁচ বছরের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। সুবর্ণা আক্তার নদী আনন্দ টিভির পাশাপাশি স্থানীয় অনলাইন পোর্টাল ‘দৈনিক জাগ্রত বাংলা’র সম্পাদক ও প্রকাশক ছিলেন।



আজকের প্রশ্ন