মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ০৩:৫৯:২১

মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র, কে এই গিট উইল্ডার্স?

মহানবী (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র, কে এই গিট উইল্ডার্স?

ঢাকা : মহানবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র বিষয়ক কার্টুন প্রতিযোগিতা আয়োজনের উদ্যোগ নিয়ে আলোচনায় চলে আসেন নেদারল্যান্ডের গির্ট উইল্ডার্স। বিশ্বজুড়ে মুসলমানরা তার সমালোচনা ও প্রতিবাদে ফেটে পড়ে। পাকিস্তানসহ মুসলিম বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে তার ও নেদাল্যান্ডের সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল ও বিক্ষোভে অংশ নেয় অগণিত মুসলমান। সবার মনেই প্রশ্ন জাগে, ‘কে এই নরাধম ‘গির্ট উইল্ডার্স?’

১৯৬৩ সালের ৬ই সেপ্টেম্বর, নেদারল্যান্ডের লিমবার্গ প্রদেশের ভেনলো শহরে গির্ট উইল্ডার্সের জন্ম। তার বাবা ডাচ হলেও মায়ের জন্মস্থল ঔপনিবেশিক ইন্দোনেশিয়া। ডাচ ‘ম্যাভো অ্যান্ড হ্যাভো স্কুল’ এ প্রাথমিক পড়াশোনা শেষ করেন তিনি। এরপর ডাচ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় আইনের উপর বেশ কতগুলো কোর্স করেন গির্ট উইল্ডার্স। অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়ার ব্যাপক ইচ্ছা থাকলেও পরবর্তীতে কাজ ও পড়াশোনার জন্য ইসরায়েলে যেতে হয় তাকে।

এরপর সেখানে পশ্চিম তীর এলাকায় বহুদিন থাকার পর, অর্থ সংগ্রহ করে আরব বিশ্বে ভ্রমণ করেন তিনি। এতে মধ্যপ্রাচ্যের প্রতি ইসরায়েলের মনোভাব সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানকেও সমর্থন জানান উইল্ডার্স। সেইসঙ্গে ইসরায়েলের প্রতি তার অনুরাগ ও ভালবাসাও অক্ষুন্ন থাকে। এরপর নেদার‌ল্যান্ডে প্রত্যাবর্তন করে ‘পিপলস পার্টি ফর ফিডম অ্যান্ড ডেমোক্রেসি’ নামক রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন তিনি। নিয়মিত বক্তৃতা লিখতেন দলের হয়ে। ১৯৯০-১৯৯৮ সাল পর্যন্ত ওই দলের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক কাজ করেন তিনি। এই কাজের সুবাদে আরব বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ও বলকান রাষ্ট্রগুলোতে অনেকবার সফরের সুযোগ পান এই রাজনীতিবিদ। তত দিনে নেদারল্যান্ডে মুসলিম অভিবাসনের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া ও বক্তব্যের জন্য আলোচনায় চলে আসেন তিনি।

এরপর ২০০৬ সালে উইল্ডার্স নিজের দল ‘পার্টি ফর ফ্রিডম’ প্রতিষ্ঠা করেন। দলটির পার্লামেন্ট লিডার হিসেবে পরে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভে যোগদান করেন তিনি। এরপর থেকে বিভিন্ন সময় ইসলামের সমালোচনা করে তুমুল বিতর্ক তৈরি করেন এই ধূর্ত রাজনীতিবিদ। যদিও পবিত্র ‘আল কোরআন’ এর প্রসঙ্গ বিহীন উদ্ধৃতি উল্লেখ করার জন্য ইসলামিক স্কলাররা অনেকেই তার তীব্র সমালোচনা করেছেন। তবে তারপরও উইল্ডার্স তার বিতর্কিত তৎপরতা বন্ধ করেননি কোনো সময়। নিজেকে তিনি ‘অজ্ঞেয়বাদী’ হিসেবে পরিচিতি দিলেও, খ্রিস্টধর্মকে নিজের অনুকূল বলে অভিহিত করেছেন বিভিন্ন বক্তব্য ও লেখায়।

একবার গনম্যাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘আমি মুসলমানদের বিরোধী নই, তবে ইসলামের বিরোধী। এছাড়া নেদারল্যান্ডের অর্ধেক মানুষ তার সমর্থক ও বাকি অর্ধেক মানুষ তার সমালোচক বলেও উল্লেখ করেন তিনি। সর্বশেষ, চলতি বছর, মহানবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.) এর ব্যঙ্গচিত্র বিষয়ক একটি প্রতিযোগিতা আয়োজনের ঘোষণা দিয়ে, বিশ্বব্যাপী মুসলমানদের তোপের মুখে পড়েন গিল্ডার্স। পাকিস্তানসহ মুসলিম বিশ্ব তার ও নেদারল্যান্ডের সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। পরিশেষে মুসলিম বিশ্বের চাপের মুখে, বৃহস্পতিবার (৩০ আগস্ট) এই প্রতিযোগীতা বাতিলের ঘোষণা দেন তিনি। সূত্র উইকিপিডিয়া

 

 



আজকের প্রশ্ন