বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০১৮, ০৬:৪৩:৪৩

চীনের সেই জ্বলন্ত ট্যাংকার থেকে ২ লাশ উদ্ধার

চীনের সেই জ্বলন্ত ট্যাংকার থেকে ২ লাশ উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : চীনের পূর্ব উপকূলে জাহাজ-ট্যাংকারের সংঘর্ষের পর জ্বলতে থাকা দুটি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

ঠিক এক সপ্তাহে আগে এই দুর্ঘটনার পর এক নাবিকের লাশ সাগর থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল। এ নিয়ে ৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হলেও তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

ট্যাংকারটিতে মোট ৩২ জন নাবিক ছিলেন। তাদের মধ্যে ২ জন বাংলাদেশি। আর বাকি ৩০ জন ইরানের নাগরিক।

‘সানচি’ নামের জাহাজটি ১ লাখ ৩৬ হাজার টন অপরিশোধিত তেল নিয়ে ইরান থেকে দক্ষিণ কোরিয়া যাচ্ছিল। গত ৬ জানুয়ারি পূর্ব চীন সাগরের সাংহাই উপকূল থেকে ২৬৯ কিলোমিটার দূরে হংকংয়ের মালবাহী জাহাজ সিএফ ক্রিসটালের সঙ্গে সংঘর্ষের পর ট্যাংকারটিতে আগুন ধরে যায়। কার্গো জাহাজের ২১ নাবিকের সবাইকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে চীনের পরিবহন মন্ত্রণালয়।

এরপর থেকে সাগরে জ্বলছে ট্যাংকারটি। তারমধ্যেই চলছে উদ্ধার অভিযান। দক্ষিণ কোরিয়ার একটি এবং জাপানের ২টিসহ মোট ১২টি জাহাজ উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে। তবে আগুন ও ধোঁয়ায় উদ্ধারকাজ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে বলে জানা গেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তাদের ধারণা, সাবমেরিনটি এক মাস ধরে জ্বলতে থাকবে। এরপর বিস্ফোরিত হয়ে সাগরে ডুবে যাবে।

চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম সিনহুয়া জানায়, আজ শনিবার সানচির ডেক থেকে ২ টি লাশ উদ্ধার করতে পেরেছেন উদ্ধারকর্মীরা। আগুনের আঁচে ২ টি লাশ উদ্ধার করেই তাদের সরে আসতে হয়।

রয়টার্স জানায়, জ্বলন্ত জাহাজটিতে তাপমাত্রা এখন ৮৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস (১৯২ ডিগ্রি ৪  উদ্ধারকর্মী সানচির ডেকে নামতে পারলেও আধা ঘণ্টার বেশি টিকতে পারেননি।

জাহাজটি উদ্ধারের পর মরদেহে সাংহাইয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

উদ্ধারকারীরা জাহাজটির ডেটা রেকর্ডার বা ব্ল্যাক বক্স আনতে পেরেছেন বলে চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন সিসিটিভির খবরে বলা হয়। কী কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে, ব্ল্যাক বক্স উদ্ধারে এখন জানা যাবে বলে আশা করছেন উদ্ধারকারীরা।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি জাতিসংঘে যাওয়ায় সরকার আতঙ্কিত - ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?