শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ২৩ জুন, ২০১৮, ১০:১৯:০৯

যে কারণে মেলানিয়ার জ্যাকেট নিয়ে বিতর্ক

যে কারণে মেলানিয়ার জ্যাকেট নিয়ে বিতর্ক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ফের বিতর্কে জড়ালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প। এবার একটি জ্যাকেট পরাকে কেন্দ্র করে এই বিতর্ক। জলপাই রঙের যে জ্যাকেটের পেছনের গ্রাফিতিতে লেখা, ‘আই রিয়েলি ডোন্ট কেয়ার, ডু ইউ?’ (আমি আসলে কাউকে পাত্তা দিই না, আপনি দেন?)।

বৃহস্পতিবার আমেরিকার টেক্সাসে অভিবাসী শিশুদের আটককেন্দ্র পরিদর্শনে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে গিয়ে তাদের মা-বাবার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলা শিশুদের পরিবারে ফিরিয়ে দিতে সাহায্যের আশ্বাস দেন। শিশুদের আটককেন্দ্রে তিনি বাদামি রঙের পোশাক পরা ছিলেন। ওই সময়ে পরনে বিতর্কিত জ্যাকেটটি ছিল না। কিন্তু টেক্সাস থেকে ওয়াশিংটনে ডিসিতে ফেরার পথে তার গায়ে ওই জলপাই রঙের জ্যাকেটটি দেখা যায়। বিমানে ওঠার সময় তার জ্যাকেট পরা ছবিটি প্রকাশের কয়েক ঘণ্টা পর তা ভাইরাল হয়ে যায়। যে জ্যাকেট ঘিরে শুরু হয় যাবতীয় বিতর্ক।

ঠিক এমন একটি জায়গায় এমন গ্রাফিতির জ্যাকেট পরার জন্য বেছে নেয়ায় মেলানিয়ার সমালোচনায় মেতেছেন অনেকে। কেউ কেউ বলছেন, জ্যাকেটটি একেবারে বেখাপ্পা। তবে মেলানিয়ার মুখপাত্র স্পষ্ট জানিয়েছেন, ‘জ্যাকেটে এই লেখার পিছনে কোনো লুকানো বার্তা নেই।’ নারীদের পোশাক প্রতিষ্ঠান জারার এই জ্যাকেটের দাম মাত্র ৩৯ ডলার (৩ হাজার ৩০০ টাকার মতো)। মেলানিয়ার জ্যাকেটটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। তবে শিশুদের আটককেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের কোনও প্রশ্নের জবাব দেননি মেলানিয়া।

ডেনিজকান গ্রিমস নামে একজন ট্যুইটে লিখেছেন, ‘সোজা একটি কথা ভাবুন, মেলানিয়া হঠাৎ করে ৩০ ডলারের এই জ্যাকেট পরেননি। তার চারপাশে দামি অনেক বিখ্যাত প্রতিষ্ঠানের পোশাক ছিল। তিনি ইচ্ছা করেই এটি পরেছিলেন।’ ওয়াশিংটনে বিবিসি ওয়ার্ল্ডের সংবাদ উপস্থাপক ক্যাটি কের মতে, জায়গা বুঝে পোশাক নির্বাচন করা উচিত ছিল মেলানিয়ার।

মেক্সিকো সীমান্তে শিশুদের প্রতি সহানুভূতি জানানোর বিষয়টি এই জ্যাকেটের কারণে ম্লান হয়ে গিয়েছে। তিনি টেক্সাস উড়ে গিয়েছেন কষ্ট করে, শিশুদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন, কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেছেন, শিশুদের হৃদয়বিদারক গল্প শুনছেন- এ সবকিছুই তার পোশাক বিবেচনায় উদাসীনতার কারণে চাপা পড়ে গিয়েছে। কিছু না ভেবেই তিনি যদি এই জ্যাকেট পরে থাকেন তবে বলতে হবে, কোনও কিছু হৃদয় দিয়ে অনুভব করার ক্ষেত্রে তার সমস্যা রয়েছে। যদিও শুরু থেকেই অভিবাসী শিশুদের বিচ্ছিন্ন করার নীতির বিরোধিতা করে চলেছেন মেলানিয়া ট্রাম্প।

মেলানিয়া ট্রাম্পের পোশাকের ব্যাপারে এমন সংবাদ পরিবেশনে তার মুখপাত্র স্টেফানি গ্রিশাম মার্কিন সংবাদমাধ্যমকে একহাত নেন। ট্যুইটারে তিনি বলেন, ‘টেক্সাসে ওই শিশুদের সঙ্গে সাক্ষাতের প্রভাব অসাধারণ। তিনি কী পরেছেন তার চেয়ে শিশুদের সাহায্য করার জন্য তার (মেলানিয়া ট্রাম্প) তৎপরতার উপর যদি গণমাধ্যম তাদের সময় ও শক্তি ব্যয় করত, তাহলে আমরা শিশুদের পক্ষে রুচিসম্মত কিছু উপাদান পেতাম।’

তবে এই অবস্থায় স্ত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছেন ট্রাম্প। শুক্রবার ভোরে ট্যুইটারে স্ত্রীর পক্ষ নিয়ে তিনি লেখেন, ‘আমি আসলেই পাত্তা দিই না, আপনি? মেলানিয়ার জ্যাকেটের পিছনের এই লেখাটি ভুয়া সংবাদমাধ্যমগুলোর উদ্দেশ্যে। মেলানিয়াও বুঝে গেছেন তারা কতটা অসৎ এবং সত্যিই তিনি এসব আর পাত্তা দেন না!’

আজকের প্রশ্ন

বিএনপি জাতিসংঘে যাওয়ায় সরকার আতঙ্কিত - ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের এ বক্তব্য সমর্থন করেন কি?