বুধবার, ২৩ মে ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০১৮, ১১:৫৮:৪৯

রাজনৈতিক বিশ্লেষক হতে কী কী লাগে?

রাজনৈতিক বিশ্লেষক হতে কী কী লাগে?

ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ

বিএনপি জোটের শরিক বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) চেয়ারম্যান আন্দালিব রহমান পার্থ। তরুণ প্রজন্মের কাছে এই তরুণ রাজনীতিকের বেশ জনপ্রিয়তা আছে। টেলিভিশনের টকশো, সভা সমাবেশে বক্তব্য, বিগত সময়ে জাতীয় সংসদে তার দেয়া বক্তব্য বেশ আলোড়ন সৃষ্টি করে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের নিজের ভেরিফাইড পেইজে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। ঢাকাটাইমসের পাঠকদের জন্য তা হুবহু তুলে ধরে হলো-

রাজনৈতিক বিশ্লেষক হতে কি কি লাগে? যে কেউ কি বিশ্লেষক? রাজনীতিবিদ আর রাজনৈতিক দল নিয়ে সমালোচনা করলেই কি রাজনৈতিক বিশ্লেষক?...এরকম বিশ্লেষকরা কোন কোন দলের কিছু কিছু মানুষের সাময়িক বাহবা পাবে কিন্তু দল কোনদিন তাদেরকে দলে নিবে না...। আর যদি নিয়েও নেয় তাহলে সারাজীবন হাইব্রিড বা ওবায়েদুল কাদের সাহেবের ভাষায় কাউয়া ডাকবে...।

পার্থ সাবেক সংসদ সদস্য এবং ঢাকায় ব্রিটিশ স্কুল অব বিজনেসের অধ্যক্ষ। তিনি ১৯৯৭ সালে লিঙ্কনস ইন থেকে বার পরীক্ষায় পাস করেন। দেশে ফিরে ব্যারিস্টার রফিকুল হকের তত্ত্বাবধানে একজন শিক্ষানবিশ হিসেবে যোগদান করেন এবং ৩ বছর তার সাথে কাজ করেন। বর্তমানে তিনি ঢাকায় আইনজীবী হিসেবে কাজ করেছেন এবং ঢাকায় অবস্থিত ব্রিটিশ স্কুল অফ ল এর অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করছেন।


 

২০০০ সাল থেকে তিনি তার বাবার সাথে রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে জড়িয়ে পড়েন। ২০০১ সালের সাধারণ নির্বাচনে তিনি ভোলা-১ আসনে চারদলীয় জোটের হয়ে নির্বাচন করে বিজয়ী হন।

২০০৪ সালের এপ্রিল মাসে তার বাবা নাজিউর রহমান মঞ্জুর মৃত্যুর পর বিজেপির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ডিসেম্বর ২৯ তারিখে তিনি সংসদীয় নির্বাচনে ভোলা -১ আসন থেকে নির্বাচিত হন।

 

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন

আজকের প্রশ্ন

খুলনা সিটি নির্বাচনের ভোটকে ‘প্রহসন’ বলেছেন বিএনপি ও বামপন্থিরা। আপনি কি একমত?