সোমবার, ২৫ জুন ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৭, ১১:৫২:৩৯

ময়মনসিংহে ইজতেমা মাঠে চলছে শেষ প্রস্তুতি

ময়মনসিংহে ইজতেমা মাঠে চলছে শেষ প্রস্তুতি

ময়মনসিংহ: আগামী ২১ ডিসেম্বর বাদ ফজর আম-বয়ানের মধ্যদিয়ে ময়মনসিংহে শুরু হচ্ছে আঞ্চলিক ইজতেমা। ইতোমধ্যে তিনদিনব্যাপী এই ইজতেমার প্রস্তুতি প্রায় শেষ করেছে তাবলীগ জামায়াত। ইজতেমা মাঠে এখন চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা অংশ নিয়েছেন মাঠ গোছানোর এই কাজে।

ময়মনসিংহে প্রথম আঞ্চলিক ইজতেমা শুরু হয়েছিল ২০০৩ সালে। এরপর ২০০৮ সালে দ্বিতীয় বার, ২০১৫ সালে তৃতীয় বার এই ইজতেমা হয়। এবার চতুর্থ বারের মতো এই ইজতেমা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর ) বিকেলে নগরীর আকুয়া বাইপাস সড়কের মার্কাজ মসজিদ এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মুসল্লিরা ইজতেমার মাঠ গোছানোর কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। প্রায় ৫০ একর জমিতে নির্মিত প্যান্ডেলে বসে লক্ষাধিক এবং আশপাশে অবস্থান করে আরও তিন লক্ষাধিক মুসল্লি বয়ান শুনতে পারবেন।

অজু ও গোসলের জন্য ইজতেমা মাঠ সংলগ্ন পুকুরে বাঁশের মাচা তৈরি করা হয়েছে। ইজতেমায় বিদেশি মুসল্লি, কাকরাইলের মুরুব্বি, ওলামায়ে কেরাম, বিশেষ মেহমান ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য আলাদা স্থানের ব্যবস্থা করা হয়েছে।আগামী ২৩ ডিসেম্বর দুপুর ১২ টায় আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে তিন দিনব্যাপী ইজতেমা শেষ হবে।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক খলিলুর রহমান জানান, ইজতেমায় সার্বিক নিরাপত্তার জন্য গোয়েন্দা নজরদারি, ওয়াচ টাওয়ার বসানো, কন্ট্রোল রুম স্থাপন, সন্ত্রাস ও নাশকতাসহ নানা অপরাধ দমনে সিসি ক্যামেরা, যাতায়াত নির্বিঘ্ন করতে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিত করা হয়েছে।

এছাড়া মেডিকেল টিম, বিশুদ্ধ খাবার পানি, ফায়ার সার্ভিস, অ্যাম্বুলেন্সসহ অন্যান্য ব্যবস্থা গ্রহণে সংশ্লিষ্ট দফতরকে নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার সৈয়দ নূরুল ইসলাম জানান, জেলা পুলিশ ইতোমধ্যেই তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। সিসি ক্যামেরা ও ওয়াচ টাওয়ারের মাধ্যমে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। সাদা পোশাকে গোয়েন্দা নজদারি, নিয়মিত টহল, সুষ্ঠু ট্রাফিক ব্যবস্থা নিশ্চিত করাসহ প্রয়োজনীয় সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

আজকের প্রশ্ন

খুলনা সিটি নির্বাচনের ভোটকে ‘প্রহসন’ বলেছেন বিএনপি ও বামপন্থিরা। আপনি কি একমত?