ঢাকা, সোমবার ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৭ - 

গোপনে সাংগঠনিক শক্তি সঞ্চয়ের কাজ করছে জামায়াত

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 বৃহঃস্পতিবার ২০শে এপ্রিল ২০১৭

ঢাকা: দীর্ঘদিন ধরেই মাঠের রাজনীতিতে নীরবতা পালন করছে জামায়াতে ইসলামী। কেবলমাত্র ইস্যুকেন্দ্রিক গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠানো ছাড়া রাজনৈতিক তেমন কোন কর্মসূচিও নেই জামায়াত-শিবিরের। গত বছরের শেষের দিকে দলের শীর্ষ কয়েকজন নেতার ফাঁসি কার্যকরের প্রতিবাদে হরতালের ডাক দিলেও রাজপথে কোথাও পিকেটিং করতে দেখা যায়নি জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীদেরকে।

এক দিকে জামায়াতের নিবন্ধন বাতিলের চেষ্টা অন্যদিকে রাজনীতির কোণঠাসায় পড়ে স্বাভাবিক ভাবে নীরবতা দেখাচ্ছে তারা। তবে বাস্তবে তারা ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে সাংগঠনিক শক্তিতে শক্তিশালী করে তুলছে। সারাদেশেই গোপনে তাদের সাংগঠনিক শক্তি সঞ্চয়ের কাজ করছে দলটি।

খোজ নিয়ে জানা যায়, ২০ দলীয় জোটের সঙ্গে সম্পর্ক, কর্মসূচি কোথাও দেখা যায় না দলটির নেতাকর্মীদের। এমনকি আগে গোপনে বৈঠক করার যে ধারাটি ছিল, এখন আর সেটিও সেভাবে হচ্ছে না। রাজনীতির মাঠে ‘সুসংগঠিত’ দল হিসেবে পরিচিত জামায়াতে ইসলামী দীর্ঘদিন ধরে চুপ থাকার পেছনে অনেক কারণ রয়েছে।

মাঠের রাজনীতি অনুকূলে না থাকায় নেতাকর্মীদের মন এখন দল গোছানোর দিকে। কেন্দ্রের নির্দেশনা মতো আনুষ্ঠানিক বৈঠকের বদলে নানা কৌশলে সাংগঠনিক শক্তি সঞ্চয়ের জন্য ভেতরে ভেতরে সারা দেশে কাজ চলছে দলটির। আগে গোপনে বৈঠক করার যে ধারাটি ছিল, সেটিও এখন আর সেভাবে হচ্ছে না। তবে আগের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে কাজ করতে না পারলেও বসে নেই দলটির নেতাকর্মীরা। বর্তমান অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্র থেকে দেয়া নির্দেশনা অনুযায়ী, তৃণমূল পর্যায়েও ভিন্ন কৌশলে চালানো হচ্ছে সাংগঠনিক কার্যক্রম। কখনো কখনো সবার কাছে দলীয় সিদ্ধান্ত পৌঁছে যাচ্ছে ব্যক্তিগত আলাপে। কখনো আবার আড্ডার ফাঁকে সেরে নেয়া হয় সাংগঠনিক আলাপ।

সূত্র জানায়, আত্মগোপনে থাকা কেন্দ্রীয় নেতারাও বিভিন্ন কৌশলে বিভিন্ন স্থান সফর করছেন। ইতোমধ্যে দলের সর্বোচ্চ ফোরাম কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ, কর্মপরিষদ ও মজলিশে শুরায় সারা দেশ থেকে বাছাই করা তরুণ নেতাদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে সারা দেশে দলের গুরুত্বপূর্ণ শাখা কমিটিগুলোতেও তরুণদের অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে। জামায়াতের কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজপথের আন্দোলনের পরিবর্তে সাংগঠনিক মূলকাজ তথা দাওয়াতি কাজের দিকে বেশি জোর দিচ্ছে দলটি। পাশাপাশি চলছে অন্যান্য কার্যক্রমও।

সূত্রে জানা যায়, জামায়াতের নিবন্ধন নিয়ে সরকার শেষ পর‌্যন্ত কী সিদ্ধান্ত নেয় সেদিকে তাকিয়ে আছে দলটির শীর্ষ নেতারা। নিষিদ্ধ হলে কোন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে দলটি রাজনীতির মাঠে থাকবে সে ব্যাপারেও চিন্তাভাবনা অনেকটা চূড়ান্ত করে রেখেছে। জামায়াত ইসলামী দলটি নিষিদ্ধ হলে তার তরুণ নেতৃত্বকে সামনে এনে নতুন নামে রাজনীতির মাঠে নামার চিন্তা করছে।

এদিকে জামায়াতের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছে বিএনপি এমনটাই দাবী করে ২০দলীয় জোটের এমন শরিক দলের নেতা জানান, জামায়াতের ব্যাপারে সরকারের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে আছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। কারণ জামায়াত নিষিদ্ধ হলে নতুন নামে নতুন নেতৃত্বে দল পরিচালনা করবেন তারা।

নাম প্রকাশ করা না শর্তে জামায়াতের এক নেতা জানান, দেশে বর্তমানে যে পরিস্থিতি রিরাজমান তাতে আমরা কোথাও বসতে পারছি না। নেতাকর্মীরা জড়ো হতে পারছি না। যে হারে গ্রেফতার, গুম, খুন, নির্যাতন-নিপীড়ন চলছে। তাতে প্রকাশ্যে নেতারা মাঠে নামতে চায় না। এদিকে সংগঠনের কর্মকান্ড ও বন্ধ রাখা যাবে না। তাই পুলিশের গ্রেফতার এড়িয়ে চলতে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন উপায়ে আড্ডার ফাঁকে কিছু নেতাকর্মী জড়ো হয়ে দলের সাংগঠনিক তথ্য আদান-প্রদান করছি। এভাবে দলের নির্দেশনা নেতাকর্মীদের কাছে পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। বর্তমান সময়ের চাইতে কঠিন অবস্থার মধ্য দিয়ে জামায়াতকে রাজনীতি করতে হয়েছে। বর্তমানে যেসব কাজ চলছে তা স্বাভাবিক সাংগঠনিক কার্যক্রমেরই অংশ। সরকারের নানা জুলুম-নির্যাতন উপেক্ষা করেই এসব কার্যক্রম চলছে, চলবে। যেহেতু আপাতত সেভাবে কর্মসূচি নেই, তাই সংগঠন গোছানোর দিকেই বেশি মনযোগ দেয়া হচ্ছে।

ইসলামী ছাত্র শিবিরের এক কর্মী জানায়, দলীয় কর্মকান্ড তারা গোপনে গোপনেই করতে হচ্ছে। আপাতত রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার বসবাসরত নেতাকর্মীরা একেক সময় এক পন্থা অবলম্বন করে মিটিং করছে। কখনো কখনো রাতের বেলায় বাসা বাড়িতে জমায়েত হয়ে কার্যক্রম চালাচ্ছে তারা।

এদিকে শীর্ষ নেতাদের ফাঁসি হলেও জামায়াতে নেতৃত্বের সংকট নেই। নতুন করে গঠিত হয়েছে কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ ও কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ। নতুন সদস্য যুক্ত করা হয়েছে কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরায়ও। এর বাইরে নতুন নির্বাচিত নেতৃত্ব ও নতুন নামের বিষয়টি পরিস্থিতির ওপর নির্ভরশীল। তবে সরকারের সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করছে দলটির ভবিষ্যৎ।

Advertisement
চট্টগ্রামে বিএনপি কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা সোমবার দিনটি আপনার কেমন যাবে? 'নীল ছবি দেখিয়ে ধর্ষণ', মোদিকে স্কুলছাত্রীর চিঠি উল্টোপথে গাড়ি: প্রতিমন্ত্রী-সচিবসহ ৫০টি গাড়িকে জরিমানা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ উপযোগী অবস্থানে ১০ কোম্পানি! তানোরে অবৈধ স্ব মিলে শ্রমিকের কাটা পড়ল আঙ্গুল বরিশালে ইবতেদায়ী মাদ্রাসা জাতীয় করন সহ ৬ দফা দাবীতে মানববন্ধন মানবিক বিপর্যয়ের জন্য মিয়ানমার সরকার দায়ী: মির্জা ফখরুল ধূমপান ও মদ্যপানের মতোই ক্ষতিকর অতিরিক্ত ঘুম যুবদল নেতা আনন্দ শাহ কে অবিলম্বে মুক্তি দিন : যুবদল মাটিরাঙ্গায় ইয়াবাসহ যুবক আটক সভাপতি সারোয়ান জাহান,সাধারণ সম্পাদক সাহাজুল ইসলাম মালিতে শান্তি মিশনে ৩ বাংলাদেশি সেনা নিহত মিরপুরে এপিবিএন-৫ এর অভিযানে ইয়াবাসহ মাদক সম্রাট আটক ইবির পরিবহন সংকট নিরসনে ভিসি বরাবর স্মারক লিপি পর্ন তারকার মুখে ঘুষি মারলেন শেন ওয়ার্ন! খাগড়াছড়ি পার্বত্যজেলায় শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় স্থিতাবস্তা জারি হুইপের ভাইয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টা মামলা, উত্তাল শেরপুর স্নাতক পাসেই যমুনা ব্যাংকে চাকরি সারারাত কেঁদেছেন কুসুম! ‘সন্তানদের সামনেই আমাকে ধর্ষণ করে বার্মিজ সেনারা’ এক লাখ রোহিঙ্গার জন্য আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ করে দেবে তুরস্ক ঝালকাঠিতে ডাকাত দলের হানা: নারীসহ আহত-৪ ঢাকায় বলিউড সেলিব্রেটিদের প্রশিক্ষক ইয়াসমিনের ফিটনেস স্টুডিও ইমরানের ওপর হামলা: ২৫ অক্টোবর প্রতিবেদন দাখিল ‘প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রের খবর ভিত্তিহীন’ 'ভারত সন্ত্রাসের জন্মদাত্রী' দু’মাস ধরে বেতন ভাতা বন্ধ বড়পুকুরিয়ায় : মানবেতর জীবন ফাঁদে ফেলে মুক্তিপণ আদায়কালে নারীসহ আটক ২ ইমামের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে মানববন্ধন চাল নিয়ে সরকার জনগণের সাথে তামাশা করছে: গোলাম মোস্তফা ১৩ কোটি টাকার ইয়াবাসহ ২ রোহিঙ্গা আটক ধূমপান ও মদ্যপানের মতোই ক্ষতিকর অতিরিক্ত ঘুম আ.লীগ ক্ষমতায় এলেই দেশে দুর্ভিক্ষ হয়: দুদু চীনে ভূমিধসে নিহত ৩ আইটেম গান নিয়ে আসছেন কারিনা অশালীন পোশাক পরায় বিচার বিভাগের কর্মচারীকে বরখাস্ত যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা অনিবার্য: উত্তর কোরিয়া 'ঈর্ষা থেকেই প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে' নারী ওসির ‘যৌন লালসার’ শিকার নারী কনস্টেবল 'সু চির বক্তব্য ভাওতাবাজি ছাড়া কিছু নয়' সানি লিওন'র প্রতিশোধ! গ্যাটকো মামলার পরবতী শুনানি ৫ নভেম্বর ভারতের কাছে হোয়াইটওয়াশ হবে অস্ট্রেলিয়া : শেবাগ রাম রহিমকে বিয়ে করতে চেয়েছিলাম: রাখি কর্নফুলী উপজেলা নির্বাচনে কেন্দ্র দখল-ভোট জালিয়াতি: বিএনপির ভোট বর্জন রোহিঙ্গা ইস্যুতে সরকার সময় মতো পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে: রিজভী দেশে ফিরেছেন প্রধান বিচারপতি গাইবান্ধায় ১১১ টন চাল জব্দ, ৫ গুদাম সিলগালা এখনও ল্যান্ডমাইন বসাচ্ছে মিয়ানমার: এইচআরডব্লিউ