ঢাকা, সোমবার ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৭ - 

রামপালেই বিদ্যুৎ কেন্দ্র করতে অনড় কেন বাংলাদেশ সরকার?

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 শুক্রবার ২১শে এপ্রিল ২০১৭

ঢাকা: বাগেরহাটের রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের বিরুদ্ধে গত কয়েক বছর ধরে রাস্তায় বিক্ষোভ করলেও সেটি সরকারের কাছে তেমন একটা গুরুত্ব পাচ্ছেনা । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পরিষ্কার করে জানিয়ে দিয়েছে রামপালেই বিদ্যুৎ কেন্দ্র হবে।

কিন্তু বামপন্থী সংগঠনগুলোর আন্দোলনে কোন ভাটা পড়েনি। বৃহস্পতিবার খুলনা শহরে তারা রামপাল প্রকল্প বিরোধী সমাবেশের পাশাপাশি আরো কিছু কর্মসূচী ঘোষণা করেছে।

বামপন্থী সংগঠনগুলোর আন্দোলনে সাধারণ মানুষের খুব একটা অংশগ্রহণ না থাকলেও সংবাদমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অনেকেই এ প্রকল্পের বিপক্ষে কথা বলছেন। ইউনেস্কোসহ বিভিন্ন সংস্থা এ প্রকল্প নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। বাংলাদেশের জ্বালানী বিশেষজ্ঞ এবং পরিবেশবিদদের অনেকেই মনে করেন, সুন্দরবনের কাছে রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র না করলেই ভালো হতো।

কিন্তু এতো কিছুর পরেও সরকার কেন এ প্রকল্প নিয়ে অনড় সেটি নিয়ে বিভিন্ন ব্যাখ্যা এবং অনুমান আছে।

সরকার বিরোধীদের অনেকেই মনে করেন, এ প্রকল্পের সাথে ভারত সম্পৃক্ত থাকায় বাংলাদেশ সরকার এখান থেকে পিছিয়ে আসতে চাইছে না ।

তবে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং জ্বালানী বিশেষজ্ঞ ইজাজ হোসেন জানালেন, রামপালের বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের বিষয়ে ভারতের আগ্রহের পাশাপাশি বাংলাদেশের চাহিদা ছিল।

‘বাংলাদেশ চাচ্ছিল যে তাদের কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো কোস্টাল এরিয়ার (উপকূলীয় এলাকার) বিভিন্ন জায়গায় হবে। কারণ বিদ্যুতের জন্য কয়লা বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়, ‘বলছিলেন অধ্যাপক হোসেন। বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো দেশের একটি অঞ্চলে বেশি না করে বিভিন্ন জায়গায় স্থাপন করা হলে বিদ্যুৎ বিতরণে সুবিধা হয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

রামপালের যে জায়গাটিতে বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে সেটি সুন্দরবন থেকে ১৪ কিলোমিটার দুরে। আন্দোলনকারীরা যুক্তি দিচ্ছেন, এখানে কয়লা পরিবহন করতে হবে সুন্দরবনের ভেতর দিয়ে। ফলে জীব-বৈচিত্র বাধাগ্রস্ত হবে। এছাড়া বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে দূষণ নির্গমন সুন্দরবনকে সংকটাপন্ন করবে।

যে জায়গাটিতে এখন বিদ্যুৎ কেন্দ্র হতে যাচ্ছে সেটি ছাড়া ভিন্ন কোন জায়গা কি বাছাই করা যেত?

অধ্যাপক ইজাজ হোসেন মনে করেন, একটি বিদ্যুৎ কেন্দ্র হলেই যে পুরো সুন্দরবন ধ্বংস হয়ে যাবে এমন ধারনার সাথে তিনি একমত নন। তবে জীব-বৈচিত্রের কথা চিন্তা করে অন্য আরেকটি জায়গায় বিদ্যুৎ কেন্দ্র সরিয়ে নেয়া যেত।

অধ্যাপক হোসেন জানালেন, এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য যে পরিবেশগত সমীক্ষা করা হয়েছিল সেটি উপস্থাপনের সময় তিনি উপস্থিত ছিলেন। সেখানে দু’টো জায়গার কথা বলা হয়েছিল। এখন যে জায়গাটিতে নির্মিত হতে যাচ্ছে তার চেয়ে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরে আরেকটি জায়গার প্রস্তাব করা হয়েছিল। কিন্তু বর্তমান জায়গাটিতে জমির মূল্য কম হওয়ার কারণে এ জায়গাটি বাছাই করা হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তবে রামপাল প্রকল্পের জন্য যে পরিবেশগত সমীক্ষা করা হয়েছে সেটি ‘বিশ্বমানের’ হয়নি বলে মনে তিনি।

‘এইআইএ রিপোর্টটা তো সরকার করিয়েছে। মোটামুটি সরকার যেভাবে চিন্তা করেছে তারা ওভাবেই ওটা পরিবেশন করেছে। আমি সরকারকে বলেছিলাম একটা আন্তর্জাতিক থার্ড পার্টি দিয়ে এটা করালে আপনাদের জন্যই ভালো হতো। তাহলে আর কোন বিতর্ক থাকতো না বলেও জানান অধ্যাপক হোসেন।

রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সকল প্রক্রিয়া প্রায় শেষ। ভারতের এক্সিম ব্যাংক থেকে ঋণ অনুমোদনও হয়েছে। এসব প্রক্রিয়া শেষ করতে প্রায় পাঁচ বছর সময় লেগেছে। সরকার মনে করে এমন অবস্থায় এ প্রকল্প থেকে পিছ পা হবার কোন সুযোগ নেই। সরকারের দাবী পরিবেশগত সমীক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তোলার কোন সুযোগ নেই।

জ্বালানী প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলছেন, সুন্দরবনের ক্ষতি না হবার বিষয়টি নিশ্চিত হয়েই এ প্রকল্পের জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে। তিনি জানান, দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়নের কথা চিন্তা করেই এ রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

নসরুল হামিদ বলেন, ‘আমাদের বর্তমানে উৎপাদিত বিদ্যুতের দুই থেকে তিন শতাংশ দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ ব্যবহার করে। যেদিন পদ্মা সেতু হবে এটা সাত শতাংশের উপরে চলে যাবে। তখন সে এলাকায় মিনিমাম (কমপক্ষে) তিন হাজার মেগাওয়াট জেনারেশন (উৎপাদন) হতে হবে। আমাকে বিদ্যুৎ দিতে হবে। টার্গেটটা ওখানে’।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সে এলাকায় বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য কয়লা পরিবহন সহজ হবে। তিনি মনে করেন, সুন্দরবন থেকে যথেষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে এ বিদ্যুৎ কেন্দ্র করা হচ্ছে।

সরকার এও মনে করছে যে আন্দোলন যারা করছে তাদের সংখ্যা হাতে গোনা।

বিবিসি বাংলা

প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন




Advertisement
চট্টগ্রামে বিএনপি কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা সোমবার দিনটি আপনার কেমন যাবে? 'নীল ছবি দেখিয়ে ধর্ষণ', মোদিকে স্কুলছাত্রীর চিঠি উল্টোপথে গাড়ি: প্রতিমন্ত্রী-সচিবসহ ৫০টি গাড়িকে জরিমানা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ উপযোগী অবস্থানে ১০ কোম্পানি! তানোরে অবৈধ স্ব মিলে শ্রমিকের কাটা পড়ল আঙ্গুল বরিশালে ইবতেদায়ী মাদ্রাসা জাতীয় করন সহ ৬ দফা দাবীতে মানববন্ধন মানবিক বিপর্যয়ের জন্য মিয়ানমার সরকার দায়ী: মির্জা ফখরুল ধূমপান ও মদ্যপানের মতোই ক্ষতিকর অতিরিক্ত ঘুম যুবদল নেতা আনন্দ শাহ কে অবিলম্বে মুক্তি দিন : যুবদল মাটিরাঙ্গায় ইয়াবাসহ যুবক আটক সভাপতি সারোয়ান জাহান,সাধারণ সম্পাদক সাহাজুল ইসলাম মালিতে শান্তি মিশনে ৩ বাংলাদেশি সেনা নিহত মিরপুরে এপিবিএন-৫ এর অভিযানে ইয়াবাসহ মাদক সম্রাট আটক ইবির পরিবহন সংকট নিরসনে ভিসি বরাবর স্মারক লিপি পর্ন তারকার মুখে ঘুষি মারলেন শেন ওয়ার্ন! খাগড়াছড়ি পার্বত্যজেলায় শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় স্থিতাবস্তা জারি হুইপের ভাইয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টা মামলা, উত্তাল শেরপুর স্নাতক পাসেই যমুনা ব্যাংকে চাকরি সারারাত কেঁদেছেন কুসুম! ‘সন্তানদের সামনেই আমাকে ধর্ষণ করে বার্মিজ সেনারা’ এক লাখ রোহিঙ্গার জন্য আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ করে দেবে তুরস্ক ঝালকাঠিতে ডাকাত দলের হানা: নারীসহ আহত-৪ ঢাকায় বলিউড সেলিব্রেটিদের প্রশিক্ষক ইয়াসমিনের ফিটনেস স্টুডিও ইমরানের ওপর হামলা: ২৫ অক্টোবর প্রতিবেদন দাখিল ‘প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার ষড়যন্ত্রের খবর ভিত্তিহীন’ 'ভারত সন্ত্রাসের জন্মদাত্রী' দু’মাস ধরে বেতন ভাতা বন্ধ বড়পুকুরিয়ায় : মানবেতর জীবন ফাঁদে ফেলে মুক্তিপণ আদায়কালে নারীসহ আটক ২ ইমামের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদে মানববন্ধন চাল নিয়ে সরকার জনগণের সাথে তামাশা করছে: গোলাম মোস্তফা ১৩ কোটি টাকার ইয়াবাসহ ২ রোহিঙ্গা আটক ধূমপান ও মদ্যপানের মতোই ক্ষতিকর অতিরিক্ত ঘুম আ.লীগ ক্ষমতায় এলেই দেশে দুর্ভিক্ষ হয়: দুদু চীনে ভূমিধসে নিহত ৩ আইটেম গান নিয়ে আসছেন কারিনা অশালীন পোশাক পরায় বিচার বিভাগের কর্মচারীকে বরখাস্ত যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা অনিবার্য: উত্তর কোরিয়া 'ঈর্ষা থেকেই প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে' নারী ওসির ‘যৌন লালসার’ শিকার নারী কনস্টেবল 'সু চির বক্তব্য ভাওতাবাজি ছাড়া কিছু নয়' সানি লিওন'র প্রতিশোধ! গ্যাটকো মামলার পরবতী শুনানি ৫ নভেম্বর ভারতের কাছে হোয়াইটওয়াশ হবে অস্ট্রেলিয়া : শেবাগ রাম রহিমকে বিয়ে করতে চেয়েছিলাম: রাখি কর্নফুলী উপজেলা নির্বাচনে কেন্দ্র দখল-ভোট জালিয়াতি: বিএনপির ভোট বর্জন রোহিঙ্গা ইস্যুতে সরকার সময় মতো পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছে: রিজভী দেশে ফিরেছেন প্রধান বিচারপতি গাইবান্ধায় ১১১ টন চাল জব্দ, ৫ গুদাম সিলগালা এখনও ল্যান্ডমাইন বসাচ্ছে মিয়ানমার: এইচআরডব্লিউ