ঢাকা, রবিবার ২৫শে জুন ২০১৭ - 

‘ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত মেয়েদের জন্য আতঙ্ক’

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 বুধবার ১৭ই মে ২০১৭

ঢাকা: ভারতে শিশুদের অধিকার নিয়ে কাজ করে এমন একটি বেসরকারি সংস্থা বলছে, বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকার পরিবারগুলো তাদের সন্তানদেরকে পাচারের কবল থেকে বাঁচাতে অনেকেই বাল্যবিবাহের পথ বেছে নিচ্ছেন। 'জাস্টিস এন্ড কেয়ার' নামের সংস্থাটি বলছে, শিশু-কিশোরীরা পাচার হতে পারে এই আশঙ্কা করলেও তারা পুলিশ অথবা সীমান্তরক্ষীদের না জানিয়ে ভয়ে চুপ করে থাকেন তারা।

পশ্চিমঙ্গের সীমান্ত এলাকার আটটি গ্রামে সংস্থাটির চালানো এক সমীক্ষায় এসব তথ্য উঠে এসেছে। মঙ্গলবার এ সমীক্ষাটি প্রকাশ করা হয়। ভারত-বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী আটটি গ্রামের প্রায় তিনশ কিশোরী এবং প্রায় দেড়শ মায়ের সঙ্গে কথা বলে সমীক্ষকরা জানাচ্ছেন, মূলত প্রলোভন দেখিয়ে ভারতের সীমান্তবর্তী অঞ্চলগুলি থেকে, এবং বাংলাদেশ থেকে ভারতে, শিশু-কিশোরী পাচার হচ্ছে।

'জাস্টিস এন্ড কেয়ার' সংস্থাটির গবেষণা পরিচালক সায়ন্তনী দত্ত বলছিলেন, "আমাদের সমীক্ষার একটা উদ্দেশ্য ছিল এটা জানার যে সীমান্ত অঞ্চলের মানুষ পাচারের ব্যাপারে কতটা জানেন। আমরা দেখেছি তাঁরা সবকিছুই জানেন। কিন্তু তা স্বত্ত্বেও চুপ করে থাকতে বাধ্য হন। পুলিশ বা সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে পাচারের ব্যাপারে জানাতে চান না ভয়ে। পাচারকারী বা তাদের দালালরা ওই এলাকাতেই ঘোরে আর তারা ভীষণ ক্ষমতাবান। তাদের যদি শাস্তি না হয়, তখন যিনি খবর দিয়েছেন, তাকেও বিপদের মুখে পড়তে হবে। এই আশঙ্কাতেই চুপ করে থাকেন সবাই।"

এছাড়াও সমীক্ষায় দেখা গেছে যে সীমান্ত অঞ্চলটি মেয়েদের কাছে, বিশেষত কিশোরীদের কাছে আতঙ্কের কারণ হয়ে উঠেছে। কারণ প্রলোভন দেখিয়ে পাচার করা ছাড়াও অপহরণ করে বা মাদক খাইয়েও মেয়েদের নিয়ে যাচ্ছে পাচারকারীরা। অনেক মেয়েই সমীক্ষকদের জানিয়েছে যে তারা স্কুলে বা প্রাইভেট টিউশনি পড়তে যেতেও ভয় পায়।

"সমীক্ষায় দেখা গেছে যে অনেক বাবা-মা তাঁদের মেয়েদের কম বয়সে বিয়ে দিয়ে দিচ্ছেন যাতে তারা বিপদে না পড়ে, অর্থাৎ পাচারকারীদের খপ্পরে না পড়ে," বলছিলেন মিজ. দত্ত।

আবার বাংলাদেশ থেকে যাদের পাচার করে ভারতে নিয়ে আসা হয়েছে, তাদের অনেকের সঙ্গে কথা বলে সমীক্ষকরা দেখেছেন যে পাচার হবার বিষয়টি তারা বুঝতেই পারেনি। কিশোরীরা অনুমান করতে পারেনি যে তাদের অন্য দেশে আনা হয়েছে।

সায়ন্তনী দত্তর কথায়, "তারা হয়তো ভেবেছে বাংলাদেশেরই কোনও জায়গায় কাজের জন্য বা বিয়ের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। রাতের বেলা যে তাদের আন্তর্জাতিক সীমান্ত পার করিয়ে দেওয়া হয়েছে, এটা পরের দিন সকালে তারা টের পেয়েছে। কিন্তু এদেশে কার কাছে সাহায্য চাইবে, সেটা তারা জানে না।"

সমীক্ষক দল ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিণী বা বিএসএফের কাছে সুপারিশ করেছে যে সীমান্তরক্ষী বাহিনীকে আরও সংবেদনশীল হতে হবে শিশু পাচারের বিষয়ে। যেভাবে সীমান্ত এতদিন পাহারা দিয়ে এসেছে, সে পদ্ধতি বদল করতে হবে। সীমান্ত চৌকিগুলিকে পাচারের শিকার হওয়া শিশু-কিশোরীদের কাছে আরও মিত্রভাবাপন্ন করে তুলতে হবে।বর্ডার গার্ডস বাংলাদেশের সঙ্গেও যৌথভাবে পাচার রোধে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে হবে।

বিএসএফ'র দক্ষিণ বঙ্গ ফ্রন্টিয়ারের ইন্সপেক্টর জেনারেল পি এস আর আঞ্জানিয়েলু বলছিলেন, "কারা পাচারের শিকার হয়ে আসছে, আর কারা অনুপ্রবেশ করছে - এই পার্থক্য করাটা বিএসএফ সদস্যদের কাছে খুবই কঠিন। পাচারের বিষয়ে কিছুটা জানা থাকলেও অনেক সময় আমাদের ভুল হচ্ছে, কারণ আমাদের ঠিকমতো প্রশিক্ষণ নেই এ বিষয়ে। সবেমাত্র এই বিষয়টা জানতে বুঝতে শুরু করেছি আমরা।"

সীমান্তরক্ষীদের প্রশিক্ষণও দেওয়া হচ্ছে যাতে পাচারের শিকার হওয়া ব্যক্তিদের ব্যাপারে অনেক বেশী সংবেদনশীল করানো যায় বাহিনীকে। প্রশিক্ষনের অংশ হিসাবে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলোর সঙ্গে সীমান্ত প্রহরীদের নিয়মিত দেখা-সাক্ষাত এবং মত বিনিময় করানো হচ্ছে সীমান্তে। স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জাস্টিস এন্ড কেয়ারকে দিয়ে এই সমীক্ষাটি বিএসএফই করিয়েছে।

সীমান্ত অঞ্চলের মানুষদের একটা বড় অংশের মধ্যে বিএসএফের প্রতি যে একটা বিরূপ মনোভাব রয়েছে, শিশুপাচার রোধ নিয়ে কাজ করলে সেই মনোভাবও কাটিয়ে ওঠা যাবে বলে মনে করছে বিএসএফ। বাংলাদেশ সীমান্তের মতো একটা বন্ধুত্বপূর্ণ সীমান্তের গ্রামবাসীদের বিএসএফের প্রতি বিরূপ মনোভাব কাটিয়ে উঠার উপায় নিয়ে গবেষণা করতে দিল্লিতে একটি গবেষনা কেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। বিবিসি বাংলা



খালি পায়ে হাঁটলে বুদ্ধি বাড়ে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে মার্সেল পণ্যের বিক্রি স্ত্রীর প্রতারণায় দিশেহারা প্রবাসী স্বামী গোপালগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় বৃদ্ধ নিহত আবার শ্রীদেবী-অনিল জুটি! বাংলাদেশ ছেড়ে শ্রীলঙ্কার কোচ হবেন হাথুরুসিংহে? ঈদুল ফিতরের নামাজ পড়ার নিয়ম চিকুনগুনিয়ার ব্যথা হলে যা করবেন ‘বাহুবলি’র মায়ের সঙ্গে রোমান্স করেছিলেন শাহরুখ! শিক্ষিকার সঙ্গে সম্পর্ক, অতঃপর ফিনল্যান্ডে উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হচ্ছে ঈদ ঈদের সকালে বজ্রবৃষ্টির শঙ্কা বিএনপির সব নেতার পদত্যাগ করা উচিৎ ত্বকের সৌন্দর্যে নিমপাতার ফেসপ্যাক শাকিবকে বহিষ্কারের বিষয়টি রহস্যজনক: ত্যথমন্ত্রী এয়ারটেলের দুরন্ত অফার, ৩ মাসের জন্য মিলছে ফ্রি ইন্টারনেট! বহির্নোঙ্গরে তলা ফেটে চরে আটকা ক্লিংকার বোঝাই জাহাজ নিজের খোলামেলা ছবি প্রকাশ করলেন কারিশমা কক্সবাজারে পুকুরে ডুবে ৩ শিশুর সলিল সমাধি আমার সংসার দুইটা: অপু বিশ্বাস গরমের পর বৃষ্টি, সাবধানে থাকুন সৌদি আরবে ঈদুল ফিতর উদযাপিত তেলের ট্যাংকারে আগুন: নিহত ১২৩ মওদুদের গুলশানের বাড়ি ভাঙা হচ্ছে গজল ডোবার গেট খুলে দিয়েছে ভারত, আতঙ্কে তিস্তা পাড়ের মানুষ টার্নওভারে বস্ত্রখাতের প্রাধান্য ‘গরুর গোশত খায় বলে মুসলিম তরুণদের ওপর হামলা করেছি’ নারীদের চুল রাখার বিধান ঈদে মেহেদীর নজর কাড়া ডিজাইন (ভিডিও) ঈদের দিন আবহাওয়া যেমন থাকবে আপনি কি বদমেজাজি! জেনে নিন কি কারণে নিয়োগ দেওয়া হবে ১০ হাজার চিকিৎসক যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে রেকর্ড সংখ্যক মুসলিম প্রার্থী এমপি নির্বাচিত ঈদের পর দলে ফেরার অপেক্ষায় বিএনপির সংস্কারপন্থি নেতারা নারীর গোপন যে ৪টি তথ্য কেউ দেবে না ধোনির এই অনন্য কীর্তির কথা জানেন কি? এই গরমে প্রেগন্যান্ট হলে এ ভাবে পোশাক পরে স্বস্তিতে থাকুন জেনে নিন রবিবার দিনটি আপনার কেমন যাবে? ‘আমি আব্দুল আজিজ শাকিবকে নিয়ে সিনেমা বানাবো’ চাঁদ দেখা গেছে মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়ায় দেশের মানুষের ন্যায় বিচার পাওয়ার সব পথ বন্ধ: খালেদা জিয়া ইউএনও’কে লাঞ্ছিত, ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার ঈদের ছুটিতে বরিশাল শেবাচিমে সেবিকা নির্ভর রোষ্টার অর্থাভাবে পঙ্গু হতে চলেছে দরিদ্র গৃহবধূ ‘‘হাফিজা’’ যে কারণে শিল্পাকে ছেড়ে টুইংকেল বিয়ে করেন অক্ষয় ঠাকুরগাঁওকে পরিচ্ছন্ন রাখতে এক অধ্যাপকের নিরন্তর প্রয়াস ফিলিপিন্সে ৮৯ বিদেশি জঙ্গির 'তিনজন বাংলাদেশি' পাইপলাইনে ৫ কোম্পানির রাইট আবেদন স্বামী সন্তান নিয়ে অন্যরকম এক ঈদ করবেন অপু ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা