ঢাকা, সোমবার ২৩শে অক্টোবর ২০১৭ - 

সংসদ ভেঙে দিতে রিট দ্বিমত বিএনপিতে

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 বুধবার ৯ই আগস্ট ২০১৭

ঢাকা: সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায়ে নির্বাচন কমিশন, সংসদ এবং নির্বাচন নিয়ে পর্যবেক্ষণ দেয়া হয়েছে তা ইতিবাচকভাবে দেখছে বিএনপি

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের 'ঐতিহাসিক' রায় পর্যালোচনা করছে বিএনপি। এই রায়ের ফলে সরকার চাপে থাকায় দ্রুত সময়ের মধ্যে সংসদ ভেঙ্গে দিতে আদালতে রিট করার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে দলের মধ্য সারির নেতাদের একটি অংশ। তাতে হিতে বিপরীত হতে পারে বিবেচনায় এখনই রিট না করে সতর্ক পথ চলার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে সিনিয়র নেতারা। তবে এ রায়কে কেন্দ্র করে সহায়ক সরকারের দাবি জোরালো করতে দলটি ঐক্যবদ্ধ।


বিএনপি সূত্রমতে, এই রায়ের ফলে বিগত সময়ে করা রাজনৈতিক পরিকল্পনায় কিছুটা পরিবর্তন আনবে বিএনপি। এই রায়কে ঘিরে আইনি কোনো সুবিধা নেয়া যায় কিনা তা খতিয়ে দেখছে দলটি। তবে সংসদ ভেঙে দিতে রিট করার চাপ থাকলেও আপাতত তা করছে না তারা।


বিএনপির সিনিয়র এক নেতা জানান, সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায়ে নির্বাচন কমিশন, সংসদ এবং নির্বাচন নিয়ে পর্যবেক্ষণ দেয়া হয়েছে তা ইতিবাচকভাবে দেখছে বিএনপি। এ রায় ও পর্যবেক্ষণের প্রেক্ষিতে বর্তমান সংসদ অবৈধ ঘোষণা করে রিট হলে তার ফলাফল কী হতে পারে তা নিয়ে দলের ভেতর বিশদ আলোচনা হচ্ছে।


এ রায়ের বিষয়ে দলের করণীয় কী হতে পারে তা


নিয়ে শনিবার দুপুরে সিনিয়র আইনজীবীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বৈঠকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে পুরো একটি সার সংক্ষেপ দিতে বলা হয়। এর একটি কপি লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কাছে পাঠানো হতে পারে। তারপর বিষয়গুলো নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সংবাদ সম্মেলন হতে পারে।


রায়ের এক জায়গায় প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা লিখেছেন, 'জাতীয় সংসদ নির্বাচন যদি নিরপেক্ষভাবে এবং কোনো হস্তক্ষেপ ছাড়াই স্বাধীনভাবে না হতে পারে, তাহলে গণতন্ত্র বিকশিত হতে পারে না। গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের অনুপস্থিতিতে একটি গ্রহণযোগ্য সংসদও প্রতিষ্ঠিত হতে পারে না।


তিনি মনে করেন, সংসদ ও নির্বাচন কমিশনের ওপর জনগণ আস্থা অর্পণ করতে পারছে না। এ দুটি প্রতিষ্ঠান যদি জনগণের আস্থা ও শ্রদ্ধা অর্জনের জন্য প্রাতিষ্ঠানিকীকরণ থেকে বিরত থাকে, তাহলে কোনো গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হতে পারে না।


এই পর্যবেক্ষণকে খুবই গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে বিএনপি। নেতারা মনে করছেন, গত কয়েক বছর নির্বাচন কমিশন পক্ষপাতদুষ্ট আচরণ করছে। বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে তার পর্যবেক্ষণ যথার্থ।


এই রায়ের ব্যাপারে পরবর্তী করণীয় ঠিক করতে বিএনপির উচ্চ পর্যায়ের ওই বৈঠকে রায়ে বর্তমান সংসদকে 'অকার্যকর' বলে মন্তব্য করায় সংসদ ভেঙে দেয়ার দাবি আদালতে রিটও করার পক্ষে অবস্থান নেন বেশ কয়েকজন আইনজীবী। তবে সিনিয়র নেতারা জানান,আইনি বিষয় নিয়ে কোনো হঠকারী সিদ্ধান্ত নেয়া যাবে না।


বৈঠকে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট নেতাই রায় চৌধুরী, অ্যাডভোকেট এজে মোহাম্মদ আলী, অ্যাডভোকেট মীর মোহাম্মদ নাছির, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া, অ্যাডভোকেট মাসুদ আহম্মেদ তালুকদার প্রমুখ।


বৈঠক শেষে এক নেতা জানান, ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় ঐতিহাসিক। পূর্ণাঙ্গ রায় তারা স্টাডি করছেন। রায়ে বর্তমান সংসদকে 'ডিসফাংশনাল' (অকার্যকর) বলা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আইনি কী কী পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে, তা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে।


ওই নেতা বলেন, বর্তমান সংসদে ১৫৩/১৫৪ জন সংসদ সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। সংবিধানের ৬৫/২ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী- জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হবেন সংসদ সদস্য। সে ক্ষেত্রে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির ওই নির্বাচনে এর সম্পূর্ণ ব্যত্যয় ঘটেছে। এখন যেহেতু দেশের সর্বোচ্চ আদালত সংসদে অকার্যকর বলেছে, সেহেতু আইনি পদক্ষেপ নেয়ার বিষয়ে তারা চিন্তা-ভাবনা করছেন।


এ বিষয়ে ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার বলেন, সংসদ ভেঙে দিতে রিটে করার জন্য দলের বেশ কয়েকজন নেতা মত দিয়েছেন। তবে রিট করার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এর কারণ হচ্ছে, বিচারপতিরা নিজেদের স্বার্থে জুডিশিয়ারির স্বার্থে ব্যবস্থা নিয়েছেন। কিন্তু অন্য কোনো বিষয়ে তারা একই পদক্ষেপ নেবেন তার তো কোনো মানে নেই। তবে যদি কোনো সুযোগ পাওয়া যায় একটি শুনানি হলে পাবলিক বেনেফিট পাওয়া যাবে তখন তা ভেবে দেখা যাবে।


এই রায়ের কারণে সহায়ক সরকারের প্রস্তাবনায় কোনো পরিবর্তন আনবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, কিছু পরিবর্তন আসতে পারে। কারণ এই রায়ের কারণে সরকার কিছুটা চাপে পড়েছে।


প্রসঙ্গত, গত ১ আগস্ট বিচারপতিদের অপসারণসংক্রান্ত সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে দেয়া হাইকোর্টের রায় বহাল রেখে আপিল বিভাগর পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করে। এই রায় প্রকাশের পরিপ্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে সরকারের পদত্যাগ দাবি করেছে বিএনপি।


প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন




Advertisement
আত্মঘাতী গোলে রিয়ালের জয় প্রাইম টেক্সটাইলের পর্ষদ সভা ৩০ অক্টোবর কে হচ্ছেন ফিফা বর্ষসেরা? প্রোপোজ করাই কঠিন। কীভাবে প্রেম নিবেদন করবেন‌? রইল বিশেষজ্ঞর টিপস রোহিঙ্গা আসায় মিয়ানমারের আয় মিলিয়ন ডলার! যে কোনও মেয়ের মন জয় করতে সক্ষম এই ৪ ধরনের পুরুষ সঙ্গীর জন্মদিন জেনে প্রেমে পড়ুন! কারণ, প্রেমে প্রতারণা এদের বাঁ হাতের কাজ রাজধানীতে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে দগ্ধ ৮ সোমবার দিনটি কেমন যাবে আপনার? মরা বাড়িতে কান্না করাই তাদের পেশা! খালেদা-সুষমার ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ সৈয়দ আশরাফের স্ত্রীর শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক সোমবার মিয়ানমার যাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রত্যাবাসনই রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান : সুষমা স্বরাজ আ.লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা সোমবার ২৫ কোটি টাকা জমা না দিলে এমপি শওকত চৌধুরীর জামিন বাতিল বিশ্বমানের ডাই মোল্ড তৈরি করছে ওয়ালটন ‘পেপ্যাল রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়াবে’ লাফার্জ সুরমার পর্ষদ সভা ২৯ অক্টোবর ‘অদৃশ্য’ ১১ কোটি মানুষ! রিয়ালের সঙ্গে পয়েন্ট ব্যবধান আরও বাড়াল বার্সা ‘হলফনামার বিধান বাতিল চাওয়া মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী’ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘ ইউনিটের ফল প্রকাশ নারীরা বিনামূল্যে পাবেন টেলিটকের ২০ লাখ সিম মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দেখাতে গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসকের অন্যন্য উদ্যোগ ডিএসইতে ৫৫% কোম্পানির দরপতন বৈঠক ডেকেছেন খালেদা জিয়া ম্যাশের হাফ সেঞ্চুরি কেপিসিএলের পর্ষদ সভা ২৯ অক্টোবর অরফানেজ ট্রাস্ট মামলা: খালেদা জিয়ার আবেদন নাকোচ হাইকোর্টে Put more pressure on Myanmar: Sheikh Hasina Parineeti Chopra's desi diva look ‘ইসিকে দিয়ে নীল নকশা আঁটছে আ’লীগ’ নাইজারে বন্দুকধারীদের হামলা, ১৩ পুলিশ নিহত কাল থেকে আবার মিলবে ইলিশ ঐশীর যাবজ্জীবন দণ্ডের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ 'উল্টো পথে গাড়ি চালালে কাউকে ছাড় দেব না' হার্বাল ওষুধ লিভার ক্যান্সারের ঝুঁকি বাড়ায় ন্যাশনাল ফিড মিলের পর্ষদ সভা ২৮ অক্টোবর দেশ গার্মেন্টেসের পর্ষদ সভা ২৮ অক্টোবর মসুল-রাক্কায় গণকবরে ভারতীয় রয়েছে কিনা জানতে ডিএনএ সংগ্রহ টাইটানিকের শেষ চিঠি নিলামে রেকর্ড দামে বিক্রি ১৫ দিনে সংশোধন করা যাবে জাতীয় পরিচয়পত্র রাতে খালেদা-সুষমার বৈঠক ‘নানী-দাদীদের’ সুন্দরী প্রতিযোগিতা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে চাপ দিন ঢাকা-উত্তর-দক্ষিণবঙ্গ রেল চলাচল স্বাভাবিক একসঙ্গে সেলফি তুলে কথা রাখলেন আলিয়া-জ্যাকলিন দেশের সব রুটে নৌযান চলাচল শুরু