ঢাকা, শনিবার ২১শে অক্টোবর ২০১৭ - 

তবুও ধরাছোঁয়ার বাইরে আবদুল হাই বাচ্চু

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 শনিবার ১২ই আগস্ট ২০১৭

ঢাকা: বেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আবদুল হাই বাচ্চুসহ তৎকালীন পরিচালনা পর্ষদ সদস্যরা এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরেই রয়েছেন। গত ২৬ জুলাই ৪০ কোটি টাকার ঋণ অনিয়মের মামলায় বেসিক ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাচ্চু ও পরিচালনা পর্ষদের সদস্যদের আইনের আওতায় এনে এবং তদন্ত করে ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে দুদককে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিম সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই আদেশ দেন। গত দুই বছরেও মামলাটির তদন্ত শেষ না হওয়ায় উষ্মা প্রকাশ করেন আদালত।


আদালতের রায়ের পর ১৪ দিন পার হয়েছে। কিন্তু এ আদেশ কার্যকরের বিষয়ে দুদকের কোনো দৃশ্যমান তৎপরতা লক্ষ্য করা যায়নি। তবে নাম না প্রকাশের শর্তে দুদকের এক কর্মকর্তা বলেছেন, বাচ্চুসহ পর্ষদ সদস্যারা এবার মামলার জালে আটকা পড়তে পারেন। আবদুল হাই বাচ্চু বেসিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান থাকা অবস্থায় ২০০৯ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে ব্যাংকটির দিলকুশা, গুলশান ও শান্তিনগর শাখা থেকে নিয়মবহির্ভূতভাবে সাড়ে


৪ হাজার কোটি টাকা উত্তোলন ও আত্মসাতের ঘটনা ঘটে। ঋণের কাগজপত্র যাচাই না করে জামানত ছাড়াই জাল দলিলে ভুয়া ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ঋণ দেওয়া ও অনিয়মের মাধ্যমে ?ঋণ অনুমোদনের অভিযোগ ওঠে। এ বিষয়ে ২০১০ সাল থেকে অনুসন্ধান শুরু করে দুদক। দীর্ঘ অনুসন্ধান শেষে ২০১৫ সালে রাজধানীর তিনটি থানায় ১৫৬ জনকে আসামি করে ৫৬টি মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন। তবে কোনা


মামলায় বাচ্চুসহ পর্ষদ সদস্যদের আসামি করা হয়নি। বিপুল অঙ্কের টাকা আত্মসাতের পরও চেয়ারম্যানসহ পর্ষদ সদস্যরা আসামির তালিকায় না থাকায় জনমনে প্রশ্ন ওঠে।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, 'হাইকোর্টের কপি এখনও আমাদের হাতে আসেনি। কপি এলে সেটি দেখে বিজ্ঞ আদালতের আদেশ অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ক্ষেত্রে কোনো ধরনের ব্যত্যয় ঘটবে না।' তিনি আরও বলেন, 'বেসিক ব্যাংকের অর্থ আত্মসাৎ মামলাগুলোর তদন্ত পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট সবাই আইনের আওতায় রয়েছেন। মামলাগুলোর তদন্ত শেষ হলে বোঝা যাবে কারা দোষী আর কারা দোষী নন।'


হাইকোর্টের ওই আদেশ সম্পর্কে দুদকের প্রধান আইনজীবী খুরশিদ আলম খান বলেন, আদেশ অনুযায়ী ধরে নিতে হবে বেসিক ব্যাংকের প্রতিটি মামলার ক্ষেত্রে আদেশটি প্রযোজ্য হবে। বেসিক ব্যাংকের মামলায় তদন্তের ক্ষেত্রে সাবেক চেয়ারম্যান বাচ্চুকে ছাড় দেওয়া হয়েছে বলে জনমনে ধারণা আছে, সেটি আর থাকবে না। তিনি আরও বলেন, আদেশে ঋণের নামে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগটি আইন অনুযায়ী আরও সূক্ষ্মভাবে খতিয়ে দেখতে বলা হয়েছে।


এ ব্যাপারে আইন বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিক বলেন, 'ওই একটি মামলার তদন্তে পরিচালনা পর্ষদ কর্তৃক ঋণের অনুমোদনের ক্ষেত্রে অপরাধ সংগঠনের প্রমাণ পাওয়া গেলে বিষয়টি অন্য মামলার ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হবে। কারণ দুদকের করা ৫৬ মামলার অভিযোগ একই ধরনের। ক্রেডিট কমিটির প্রস্তাবে বলা হয়েছিল ঋণ দেওয়া যাবে না। অথচ পর্ষদ সভায় সেসব ঋণের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। যেসব প্রস্তাবের বিপরীতে ঋণ দেওয়া যায় না, সেগুলো বোর্ডে উপস্থাপনও করা হয় না।'


ড. শাহদীন মালিক আরও বলেন, 'বাকি ৫৫ মামলার তদন্তে পর্ষদের দায় এড়ানো সম্ভব হবে না। তদন্তের ক্ষেত্রে দুদক কোনোভাবেই এ বিষয়টি উপেক্ষা করতে পারবে না। ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে করা মামলাগুলোতে পর্ষদ সদস্যদের নাম অন্তর্ভুক্ত না করায় আমরা আশ্চর্য হয়েছিলাম।'


দুদকের একটি সূত্র জানায়, গত দুই বছরে তদন্ত চলাকালে বেসিক ব্যাংকের ওই সময়ের পর্ষদ সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্যও ডাকা হয়নি। কমিশনের সম্মতি না থাকায় তদন্ত কর্মকর্তারা পর্ষদ সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারেননি। ৫৬ মামলার ৯ তদন্ত কর্মকর্তার তদন্তে জালিয়াতি করে ব্যাংকের অর্থ আত্মসাতে বাচ্চুসহ পর্ষদ সদস্যের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রমাণ পাওয়া গেছে বলে ওই সূত্র দাবি করে।


দুদকের তদন্ত থেকে জানা গেছে, বাচ্চুর ইঙ্গিতে ব্যাংকিং নিয়মবহির্ভূত জালিয়াতিপূর্ণ ঋণ প্রস্তাব একের পর এক অনুমোদন করা হয়। এভাবেই সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার ঋণ দেওয়া হয়। দুদকের তদন্তে দেখা গেছে, অনুমোদন দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঋণের টাকা ছাড় করার জন্য ফোনে শাখা ম্যানেজারকে জানানো হয়েছে। অনুমোদনপত্র শাখায় পেঁৗছার আগেই ছাড় করা হয়েছিল টাকা।


সূত্র জানায়, ত্রুটিপূর্ণ ঋণ প্রস্তাবগুলোতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোর (সিআইবি) কোনো মতামত ছিল না। ঋণ প্রস্তাবে উল্লেখ করা জামানতের প্রকৃত মূল্য কত টাকা হতে পারে, তা মূল্যায়ন করা হয়নি। ঋণগ্রহীতার ব্যবসায়িক অভিজ্ঞতা, ঋণের টাকা ফেরত দিতে পারবেন কি-না, তা মূল্যায়ন করা হয়নি। তদন্তে দেখা গেছে, অনেক ঋণগ্রহীতার কোনো ব্যবসা নেই। কেউ কেউ ছোটখাটো ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকলেও ৫০, ৮০ এমনকি ১০০ কোটি টাকার ঋণ দেওয়া হয়েছে। যা ফেরত দেওয়ার সক্ষমতা তাদের নেই। ঋণ প্রস্তাবে এসব বিষয় উল্লেখ করা হলেও পর্ষদ তা আমলে নেয়নি। অনেকে ঋণের টাকা পাওয়ার ১০, ১২ ও ২৭ দিন পর ব্যাংকে হিসাব খুলেছেন, যা ব্যাংকিং ইতিহাসে নজিরবিহীন ঘটনা।


এই আর্থিক কেলেঙ্কারির ঘটনা ফাঁস হওয়ার পর ব্যাংকের এমডি কাজী ফখরুল ইসলামকে অপসারণ করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেন পর্ষদ চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাচ্চু। সাবেক এই চেয়ারম্যান বর্তমানে ঢাকাতেই আছেন।


সূত্র : সমকাল


প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন




Advertisement
রবিবার ৩৩ পর্যবেক্ষকের সঙ্গে সংলাপে বসছে ইসি সম্পত্তি নিয়ে পাকিস্তানি ‘আত্মীয়’র সঙ্গে বিবাদে জড়ালেন সাইফ সাভারে সাংবাদিকদের সাথে ইউপি চেয়ারম্যানের মত বিনিময় 'ভাই' সেজে প্রেমিকার শ্বশুরবাড়িতে হাজির প্রেমিক, অতঃপর...! সোমবার দুপুরে সুষমা-খালেদা একান্ত বৈঠক দেশে দুর্যোগ চলছে আর গণতন্ত্রে মহাদুর্যোগ চলছে: মওদুদ ‘রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে ক্ষমতাসীনদের নৈতিক অবস্থান নেই’ রোহিঙ্গাদের সাহায্যে কারও কাছে হাত পাতিনি: জয় টপলেস হতে আপত্তি নেই কারিশমার তালতলীতে বেরীবাঁধ ভেঙ্গে ৮গ্রাম প্লাবিত : ২০ হাজার মানুষ পানি বন্দি মধ্যরাতে পরকীয়া প্রেমিকাসঙ্গ, কলেজ অধ্যক্ষকে গণধোলাই ভোলায় নিজের বাল্য বিয়ে ঠেকিয়ে দিলো রেশমা ভোটাধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার স্বার্থে আমরা নির্বাচনে যাবো: দুদু গোপনে ইসরাইল সফর করলেন সৌদি যুবরাজ সালমান! যারা অতিরিক্ত কাঁদেন তারা কেমন মানুষ? ভারতে ট্রাক উল্টে নিহত ১০ বন্ধ হচ্ছে টিএসসি’র কার্যক্রম নভেম্বরে চলবে দেশব্যাপী সাঁড়াশি অভিযান পশ্চিমবঙ্গে ইলিশের বন্যা, বাংলাদেশে নিষিদ্ধ মালয়েশিয়ায় ভূমিধসে নিহত ৩, বাংলাদেশিসহ নিখোঁজ ১১ কিরকুকের সম্পূর্ণ দখল নিয়েছে ইরাকি বাহিনী বৃষ্টির দিনে বাসায় যেভাবে সময় কাটাবেন খালেদা জিয়া ষড়যন্ত্র করে দেশে ফিরেছেন: সেতুমন্ত্রী ‘স্টুডেন্ট অব দি ইয়ার’ সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য অক্ষয় নয়, রণবীর সিং সুষমার ঢাকা সফরে বিএনপির সঙ্গে বৈঠকে এজেন্ডার বাইরেও আলোচনা! সিনহার বদলে মিঞা: সঙ্কটের সুরাহা হবে কি? জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে মিশলের ৩৫ পুলিশ নিহত জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের নিন্দা ও প্রতিবাদ কুষ্টিয়ায় বৃষ্টিতে দেয়াল ধসে বৃদ্ধার মৃত্যু রিয়াল মাদ্রিদে ব্রাজিলিয়ান বিস্ময় তরুণ যৌন হেনস্তার জন্য নারীরাও দায়ী, অভিনেত্রীর মন্তব্যে তোলপাড় ‘হার্ভের মতো যৌনলিপ্সু বলিউডেও আছে’ রবিবার জাপানে আছড়ে পড়বে টাইফুন ‘লান’ ইভিএমে বিশেষজ্ঞদের ‘না’ শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ মৃত্যু ঝুকির পরেও ডাক্তারদের বিজনেস বাড়াতে করা হয় সিজার নদী থেকে অবৈধভাবে বালু তুলছেন আ.লীগ নেত্রী পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করবে না উ.কোরিয়া দাম্পত্য জীবনে একঘেয়েমি? জেনে নিন উষ্ণতা ফেরানোর সহজ উপায় প্রেম নিবেদন করবেন? জেনে নিন ভালবাসার ১০টি পৃথিবীবিখ্যাত পংক্তি ধর্ষিতার পরিবারের কাছে 'ভোজ' খাওয়ানোর দাবি গ্রামবাসীর সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত, আজও সারাদেশে ভারি বৃষ্টি প্রেম করে বিয়ে করতে গেলে যে ৭টি ঝামেলায় আপনাকে পড়তে হবে চীনে প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থানচেষ্টা! রোহিঙ্গাদের দেখতে আসছেন জর্ডানের রানী কাবুলে মসজিদে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ৩০ শনিবার দিনটি আপনার কেমন যাবে? আম্বানিদের পার্টিতে অমিতাভের নাতনির মুখোমুখি রেখা, অতঃপর...