ঢাকা, শুক্রবার ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৭ - 

ধর্ষণের পর ঘোষণা দিয়ে গণধর্ষণ, চলল পৈশাচিকতা

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 সোমবার ১১ই সেপ্টেম্বর ২০১৭

ঢাকা: সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চেয়েছিলেন। এরপর ডেকে নিয়ে ধর্ষণ। স্থানীয় কয়েকজনকে বিষয়টি জানানোয় গণধর্ষণের হুমকি দেয় ধর্ষক। শেষ পর্যন্ত ২৮ বছর বয়সী ওই গৃহবধূর সঙ্গে যা করা হলো তা অকল্পনীয়। প্রথমে গণধর্ষণ এবং পরে তার যৌনাঙ্গে কাঁচের ভাঙা বোতল ঢুকিয়ে দেয় নরপশুরা। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বীরভূমের সাঁইথিয়ায় পৈশাচিক এই ঘটনা ঘটে।


গুরুতর আহত ওই গৃহবধূ সাঁইথিয়া গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিত্সাধীন। ঘটনায় মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি দুজনের খোঁজে তল্লাশি চলছে।


পুলিশ জানায়, সাঁইথিয়া পৌর এলাকার বাসিন্দা ওই গৃহবধূর স্বামী দীর্ঘ দিন ধরেই রাজ্যের বাইরে থাকেন। বর্তমানে তিনি জম্মু-কাশ্মীরে রয়েছেন। ১৪ বছরের মেয়ে আর নয় বছরের ছেলেকে নিয়ে ওই গৃহবধূ বাড়িতে থাকেন। কয়েকটি বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করেন তিনি।


প্রায় চার বছর আগে ওই গৃহবধূর সঙ্গে পাড়ার এক যুবকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি হয়। সম্প্রতি তিনি সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসার কথা ভাবেন। গত সপ্তাহে সে কথা ওই যুবককে জানাতেই সমস্যার সূত্রপাত।


গৃহবধূ পুলিশকে জানান, গত শুক্রবার রাতে তারক ভাস্কর নামে ওই যুবক সাঁইথিয়া পুরনো বাসস্ট্যান্ডের কাছে একটি পরিত্যক্ত ঘরে ডেকে নিয়ে যায় গৃহবধূকে। তারপর সেখানে তাকে ধর্ষণ করা হয়।


লোকলজ্জার ভয়ে ওই গৃহবধূ এ বিষয়ে পুলিশকে কিছু জানাননি। তবে, বাসস্ট্যান্ডের বেশ কয়েকজন যুবককে তিনি ধর্ষণের কথা বলেন। ঘটনা শুনে যুবকরা ধর্ষক তারককে মারধর করে।


এতে ক্ষেপে যায় ওই তারক। শনিবার সকালে ওই গৃহবধূকে সে হুমকি দিয়ে বলে, ‘একা ধর্ষণ করেছি, এবার গণধর্ষণ করব! রোববার রাতে ওই গৃহবধূ ছেলেমেয়েকে নিয়ে ঘুমাচ্ছিলেন। রাত দেড়টার দিকে হঠাৎই তার ঘরের দরজার খিল ভেঙে ঢুকে পড়ে তারক এবং তার দুই বন্ধু।


এরপর ছেলেমেয়েকে খুন করার হুমকি দিয়ে গৃহবধূর মুখে কাপড় ঢুকিয়ে পাশের ঘরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তিনজন মিলে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। শেষে বিয়ারের কাঁচের একটি ভাঙা বোতল তার যৌনাঙ্গে ঢুকিয়ে দেওয়া হয়।


যন্ত্রণায় চিত্কার করে কাতরাতে থাকেন ওই গৃহবধূ। কাঁদতে থাকে তার ছেলেমেয়েরাও। চিত্কারের আওয়াজ শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। তারাই সাঁইথিয়া থানায় খবর দেন। পুলিশ গৃহবধূকে উদ্ধার করে গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করেন।


ওই গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তারককে গ্রেপ্তার করেছে। সে বিবাহিত। তার দুই ছেলেমেয়েও রয়েছে। তারককে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ তার বাকি দুই বন্ধুর খোঁজে অভিযান চালাচ্ছে।


সূত্র: আনন্দবাজার।


প্রতি মুহুর্তের খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন




Advertisement
তুর্কি চাপে নত জার্মানি? রোহিঙ্গাদের রক্ষায় জাতিসংঘে ৫ প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর ভারতে ওমান ও কাতারের ৮ শেখ গ্রেফতার ‘সুন্দরী মেয়েদের তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে মিলিটারিরা’ : তারপর হাত-পা, বুক কেটে ফেলে দেয় মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে যুক্তরাষ্ট্রের চাপ উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান মেসির ছায়া থেকে বের হতেই বার্সা ছাড়ে নেইমার: ম্যাথিউর অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার প্রধান টার্গেট রুট : স্ট্রাউস রাখাইনে মসজিদে আজান দেয়ার ও নামাজ আদায়ের কেউ নেই! সঞ্জয় দত্তকে জুতাপেটা করেন স্ত্রী! রাজধানীতে একই পরিবারের ৫ জন দগ্ধ সুচিকে দেয়া পদক সম্মাননা ফিরিয়ে নেয়ার হিড়িক রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে জরুরিভিত্তিতে প্রয়োজন গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার চাপ উপেক্ষা করে মিয়ানমারকে সামরিক সরঞ্জাম দিচ্ছে ভারত পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা নারী: ‘পা ধরে বলেছি কাউকে বলবো না, বাংলাদেশে চলে যাব’ যুবদল নেতা ইমনের নামে ৫৭ ধারায় মামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ। নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে ৩৮তম বিসিএস ‘রিয়া আমার প্যান্ট খোলেননি’ শুক্রবার দিনটি আপনার কেমন যাবে? দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আরাকানের স্বাধীনতা অপরিহার্য: মুফতি ফয়জুল্লাহ রোহিঙ্গাদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে বিশ্ব মেডিকেলে ভর্তিতে নম্বর কাটার আপিল শুনানি ৩ অক্টোবর টেকনাফ অভিমুখে রোডমার্চে পুলিশের বাধা র‌্যাম্প মডেল থেকে ‘জেএমবির কমান্ডার’ বাণিজ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করলেন রিজভী কাশ্মিরে মন্ত্রীকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা, নিহত ৩ গোপালগঞ্জে সাঁতার প্রশিক্ষণের উদ্বোধন আমরা জয়ের মুখোমুখি: নোমান ডেসকোর পর্ষদ সভা ২৮ সেপ্টেম্বর এইচটিসির সঙ্গে ১১০ কোটি ডলারের চুক্তি গুগলের তারকা হওয়ার আগেই দেমাগ দেখাচ্ছেন সাইফ কন্যা সারা সূচকের সাথে কমেছে লেনদেনও রাখাইনে রেডক্রসের ত্রাণবহরে বৌদ্ধদের বোমা নিক্ষেপ রোহিঙ্গা মুসলমান গণহত্যার প্রতিবাদে গোপালগঞ্জে মানববন্ধন শেয়ার কিনবে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের পরিচালক দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাক আপ দিবে আইটেল পি ১১ স্মার্টফোন ভারতের আগ্রাসনের জবাবে পরমাণু হামলার হুঁশিয়ারি পাকিস্তানের বিশ্ব জনমত গড়তে জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই: মির্জা ফখরুল ৩ কোম্পানির লেনদেন চালু রোববার কে এই রহস্যময়ী? শাভেজ 'পত্নী', নাকি ইভাঙ্কার 'বন্ধু'! যৌন সন্ত্রাসের শিকার রোহিঙ্গা নারীরা কী করবে? রাম রহিমের মতোই যৌনতায় আসক্ত ভণ্ডবাবা ফলহারি মহারাজ! আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন ইমরান এইচ সরকার মায়নমারকে চাপ দিতে ভারতের প্রতি ওবায়দুল কাদের আহ্বান বেগুনের যত স্বাস্থ্য উপকারিতা! প্রথম ঘণ্টায় লেনদেন ১৯৪ কোটি টাকা আমরা নেটওয়ার্কসের শেয়ার বিওতে গণহত্যার দায়ে বার্মিজ সেনাবাহিনীকে সব ধরনের সহযোগিতা স্থগিত করল যুক্তরাজ্য অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে চট্টগ্রাম বিএনপি রোহিঙ্গা বিতারণের নীলনকশা চূড়ান্ত হয় ১০ দিন আগেই