ঢাকা, শুক্রবার ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৭ - 

রাম রহিমের লালসা মেটাতে শরীর খুঁজে দিত ‘বিষকন্যা’রা!

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 বুধবার ১৩ই সেপ্টেম্বর ২০১৭

ঢাকা : যত কাণ্ড রাম রহিমের ডেরায়। কীর্তির শেষ নেই ভণ্ড এই বাবার।


নিজের ডেরায় অপরাধের স্বর্গরাজ্য তৈরি করেছিল সে। আর এই সাম্রাজ্যে রাজত্ব করার জন্য রাম রহিম তৈরি করেছিল মহিলা গুণ্ডাবাহিনী। এক সময় যে সমস্ত মহিলারা গুরমিতের যৌন লালসার শিকার হত তাদের মধ্যে থেকেই বেছে নেওয়া হত এই বিশেষ দেহরক্ষীদের। যাদের বলা হত বিষকন্যা।


মায়া-মমতা কোনও কিছুই নাকি ছিল না রাম রহিমের এই গুণ্ডাবাহিনীর। রীতিমতো মগজ ধোলাই করা হত এদের। বোঝানো হত ঈশ্বরের দূত রাম রহিমের ইচ্ছেপূরণের জন্যই এদের জন্ম হয়েছে। এদের কাজ ছিল, ডেরায় আসা মহিলা ও কিশোরীদের মধ্যে থেকে সুন্দরীদের বেছে নেওয়া। তারপর তাঁদের তুলে এনে ভণ্ড বাবার বিছানায় ফেলে দেওয়া। যুবতী ও কিশোরীদের আর্ত চিৎকারেও মন গলত না এই মহিলা দেহরক্ষীদের। ভাবলেশহীনভাবে বাইরে দাঁড়িয়ে থাকত তারা। মাঝে মধ্যে নাকি গুরুর ইচ্ছেমতো তার শয্যাসঙ্গীও হত। এমনকী, রাম রহিমের জন্য রান্না করা, নোংরা জামাকাপড় কেচে দেওয়ার মতো কাজও করত।


রাম রহিম গ্রেফতার হওয়ার পর থেকেই সাহস করে মুখ খুলতে শুরু করেছেন তাঁর অনেক প্রাক্তন অনুরাগী। এঁদের মধ্যে কেউ কেউ আবার নিজেও ভুক্তভোগী। ধর্ষক বাবার এক প্রাক্তন মহিলা দেহরক্ষীর কথায়, প্রত্যেকদিন রাতে রাম রহিমের যৌন লালসা চরিতার্থ করার জন্য নতুন নতুন শরীরের প্রয়োজন হত। সেই চাহিদা মেটাত এই বিষকন্যারা। আর বাবার ইচ্ছে পূরণ না করতে পারলে বিষকন্যাদেরই নিজেদের শরীর দিয়ে তার মূল্য চোকাতে হত। গুরমিতের গুহার বিষয়ে বাইরে মুখ বন্ধ রাখতে হত। এই বিষয়টিও খেয়াল রাখত বিষকন্যারাই।


গুরমিতের ডেরার এমন স্থানগুলিতেই সার্চ অপারেশন চালিয়ে ছিলেন গোয়েন্দারা। পাওয়া গেছে রাশি রাশি কন্ডোম ও আপত্তিকর জিনিসপত্র। অবৈধভাবে চালানো হাসপাতালে বৈআইনি গর্ভপাত করানো হত বলেও অনুমান গোয়েন্দাদের। গ্রেফতার হওয়ার আগে পর্যন্ত নাকি ভণ্ড বাবা এই কীর্তি চালিয়ে গিয়েছে।


সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

Advertisement
দ. আফ্রিকাকে চেপে ধরেছেন মুস্তাফিজরা আরাকানে শান্তিরক্ষী নিয়োগ করতে হবে: ইসলামী ঐক্যজোট ৩ মাইল লম্বা বিয়ের শাড়ি প্রদর্শন, বিতর্কের মুখে দম্পতি ই-সিগারেটে হার্ট অ্যাটাক ও আকস্মিক মৃত্যুর ঝুঁকি! চা-কফির দাগ দূর করার উপায় বাংলাদেশের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার দল ঘোষণা রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ পাঠালো সৌদি আরব বগুড়ায় ফেন্সিডিল-ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৩ বগুড়ায় ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী খুন নিউ ইয়র্কে বসেই যুক্তরাষ্ট্রকে হুমকি উত্তর কোরিয়ার মন্ত্রীর দরজা খুলে দেখি, বাবা আর মেয়ে... রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বিএনপি-জামায়াতকে বাদ দিয়ে জাতীয় ঐক্য: ইনু নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন দিতে হবে: নোমান দুই তৃতীয়াংশেরও বেশি রোহিঙ্গা সাহায্য সংস্থার ত্রাণ বঞ্চিত বগুড়ায় প্রশাসনের নাকের ডগায় কোচিং বাণিজ্য রোহিঙ্গাদের জন্য ১০০ টন ত্রাণ পাঠাল সৌদি রোহিঙ্গাদের ত্রান দিলেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের এমপি আনার রোহিঙ্গাদের বিএনপি লিপ সার্ভিস দিচ্ছে : কাদের ভোলা গজনবী স্টেডিয়ামে পুরস্কার বিতরন ‘রোহিঙ্গা মেয়েদের ধর্ষণ করে অঙ্গ কেটে দেয় সেনারা’ সুনামগঞ্জে বাস খাদে পড়ে নিহত ২ মিয়ানমারের রোহিঙ্গা যুবকরা কোথায়? শাহরুখের পর রণবীরের প্রেমে মাহিরা! বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী ও ধনী ১০ মুসলিম নারী বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দরী ও ধনী ১০ মুসলিম নারী এখন বৌদ্ধদের কেন জঙ্গি বলা হচ্ছে না: এরদোগান স্মার্টফোনে আসক্তি বাড়াচ্ছে মানসিক ক্ষতি! সুচি-সেনাপ্রধান মানবতা বিরোধী অপরাধে দোষী সাব্যস্ত পচা চাল আমদানি করছে সরকার : রিজভী রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতীয় ঐক্য হয়ে গেছে : নাসিম সঞ্জয় দত্তকে জুতাপেটা করেন স্ত্রী! রাজধানীতে একই পরিবারের ৫ জন দগ্ধ সুচিকে দেয়া পদক সম্মাননা ফিরিয়ে নেয়ার হিড়িক রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে জরুরিভিত্তিতে প্রয়োজন গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার চাপ উপেক্ষা করে মিয়ানমারকে সামরিক সরঞ্জাম দিচ্ছে ভারত পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা নারী: ‘পা ধরে বলেছি কাউকে বলবো না, বাংলাদেশে চলে যাব’ যুবদল নেতা ইমনের নামে ৫৭ ধারায় মামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ। নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে ৩৮তম বিসিএস ‘রিয়া আমার প্যান্ট খোলেননি’ শুক্রবার দিনটি আপনার কেমন যাবে? দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আরাকানের স্বাধীনতা অপরিহার্য: মুফতি ফয়জুল্লাহ রোহিঙ্গাদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে বিশ্ব মেডিকেলে ভর্তিতে নম্বর কাটার আপিল শুনানি ৩ অক্টোবর টেকনাফ অভিমুখে রোডমার্চে পুলিশের বাধা র‌্যাম্প মডেল থেকে ‘জেএমবির কমান্ডার’ বাণিজ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করলেন রিজভী কাশ্মিরে মন্ত্রীকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা, নিহত ৩ গোপালগঞ্জে সাঁতার প্রশিক্ষণের উদ্বোধন আমরা জয়ের মুখোমুখি: নোমান ডেসকোর পর্ষদ সভা ২৮ সেপ্টেম্বর