ঢাকা, শুক্রবার ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৭ - 

আদালতে আ.লীগের কোনো বন্ধু পাওয়া গেল না?: তোফায়েল

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 বুধবার ১৩ই সেপ্টেম্বর ২০১৭

ঢাকা: বিএনপিকে উৎফুল্ল করতেই সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় এবং এর পর্যবেক্ষণ দেয়া হয়েছে দাবি করে আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এই রায় প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।


এই রায় প্রসঙ্গে এমিকাস কিউরিদের (আদালতের বন্ধু) দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বিস্মিত হই, এই দেশে এই আদালতে আওয়ামী লীগের কোনো বন্ধু পাওয়া গেল না?’  


বুধবার রাতে সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির ১৪৭ ধারায় আলোচনায় অংশ নিয়ে তোফায়েল এসব কথা বলেন। সন্ধ্যায় এ বিষয়ে আলোচনার প্রস্তাব দেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সাংসদ মইনুদ্দীন খান বাদল।


সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করে আনা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করেছে আপিল বিভাগ। এর ফলে বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিসিয়াল কাউন্সিলের হাতে ন্যস্ত হয়। ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে ১৯৭২ সালের সংবিধান প্রতিস্থাপিত করেছিল জাতীয় সংসদ। ওই সংবিধানের ৯৬ ধারা অনুযায়ী নৈতিক স্খলনজনিত কারণে বিচারপতিদের অপসারণ করতে পারতো সংসদ।


গত ১ আগস্ট এই মামলার যে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ হয়েছে, তাতে শাসনব্যবস্থা, সংসদ নির্বাচন কমিশন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ে নানা মন্তব্য এসেছে। ওই রায় এবং পর্যবেক্ষণ নিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা, এমনকি খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও প্রধান বিচারপতির সমালোচনা করেছেন। রায়ের পর্যবেক্ষণে বঙ্গবন্ধুকে ‘খাটো করা হয়েছে’ অভিযোগ তুলে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবিও তুলেছেন ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতা।


বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় অংশ নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি। সংসদকে কেউ যদি ছোট করার চেষ্টা করে তাহলে সমস্ত জাতিকেই ছোট করা হয়। কারণ আমরা জনগণের ভোটে নির্বাচিত প্রতিনিধি।’


তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘কোনো বড় দেশেই জুডিশিয়াল কাউন্সিল নেই। আজকে আমার অবাক লাগে এটি এখানে চালু করা হয়েছে। ১৯৫৬ এর সংবিধানে আছে সংসদ বিচারপতিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। আর ৭৭ এর সামরিক সরকারের প্রচলন করা আইনটি প্রধান বিচারপতির ভালো লেগে গেল।’


প্রধান বিচারপতির উদ্দেশ্যে তোফায়েল বলেন, ‘তিনি বলেছেন তাকে মিস কোড করা হয়েছে। মিস কোড কখন হয় যখন বেশি কথা বলা হয়। বেশি কথা ভালো নয়। এ পর্যন্ত কয়জন প্রধান বিচারপতি এতো বেশি কথা বলেছেন?’


বিচারপতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত করা যায়, রাষ্ট্রপতি পদ থেকে সরে গেলে তার বিরুদ্ধে করা যায়। কী বিস্ময়কর! বিচারপতিদের দুর্নীতির তদন্ত করা যাবে না।’


তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে কাদের আদালতের অ্যামিকাস কিউরি বা আদালতের বন্ধু হিসেবে নেয়া হয়েছে। কারা আদালতের বন্ধু হয়েছেন। ড. কামাল হোসেন। তিনি আওয়ামী লীগ ও প্রধানমন্ত্রীবিরোধী। আমিরুল ইসলামের সঙ্গে আ.লীগের সম্পৃক্ততা নেই। রোকন উদ্দিন মাহমুদ আদালতে এক কথা বলেছেন, আর বাইরে আরেক কথা বলেছেন। এজে মাহমুদ আলী। তিনি দৌড় মাহমুদ আলী হিসেবে পরিচিত। হাসান আরিফ। তিনি বিএনপির সময়ে অ্যাটর্নি জেনারেল নিযুক্ত হয়েছেন।  ফিদা কামাল। ওয়ান ইলেভেন সরকারের অ্যাটার্নি জেনারেল ছিলেন। আব্দুল ওয়াদুদ বিএনপির।  টিএইচ খান বিএনপির প্রতিষ্ঠা জিয়াউর রহমানের মন্ত্রী ছিলেন। ফারুকিও তাদের পক্ষে বক্তব্য দিয়েছেন। একমাত্র আজমালুল হক কিউসি বিপক্ষে বক্তব্য দিয়েছেন।’


আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা ড. কামাল হোসেনের একটি সাক্ষাৎকারের প্রসঙ্গ তুলে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘ড. কামাল বলেছেন আমাদের সংবিধান শুরুই হয়েছিল ‘আমরা’ দিয়ে। কিন্তু তিনি জানেন না স্বাধীনতার শুরু হয়েছিল ‘আমি’ দিয়ে। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আমি যদি হুকুম দেবার নাও পারি। তিনি বেমালুন ভুলে গেছেন এটি। আমারত্ব একদিন হিমালয়ের আমিত্বে বিলীন হয়ে গিয়েছিল। আমি এবং আমরা নিয়ে অহেতুক একটি বিতর্ক সৃষ্টি করা হয়েছে।’

Advertisement
রোহিঙ্গাদের রক্ষায় জাতিসংঘে ৫ প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রীর ভারতে ওমান ও কাতারের ৮ শেখ গ্রেফতার ‘সুন্দরী মেয়েদের তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে মিলিটারিরা’ : তারপর হাত-পা, বুক কেটে ফেলে দেয় মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে যুক্তরাষ্ট্রের চাপ উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান মেসির ছায়া থেকে বের হতেই বার্সা ছাড়ে নেইমার: ম্যাথিউর অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার প্রধান টার্গেট রুট : স্ট্রাউস রাখাইনে মসজিদে আজান দেয়ার ও নামাজ আদায়ের কেউ নেই! সঞ্জয় দত্তকে জুতাপেটা করেন স্ত্রী! রাজধানীতে একই পরিবারের ৫ জন দগ্ধ সুচিকে দেয়া পদক সম্মাননা ফিরিয়ে নেয়ার হিড়িক রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পে জরুরিভিত্তিতে প্রয়োজন গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার চাপ উপেক্ষা করে মিয়ানমারকে সামরিক সরঞ্জাম দিচ্ছে ভারত পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা নারী: ‘পা ধরে বলেছি কাউকে বলবো না, বাংলাদেশে চলে যাব’ যুবদল নেতা ইমনের নামে ৫৭ ধারায় মামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ। নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হবে ৩৮তম বিসিএস ‘রিয়া আমার প্যান্ট খোলেননি’ শুক্রবার দিনটি আপনার কেমন যাবে? দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় আরাকানের স্বাধীনতা অপরিহার্য: মুফতি ফয়জুল্লাহ রোহিঙ্গাদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে বিশ্ব মেডিকেলে ভর্তিতে নম্বর কাটার আপিল শুনানি ৩ অক্টোবর টেকনাফ অভিমুখে রোডমার্চে পুলিশের বাধা র‌্যাম্প মডেল থেকে ‘জেএমবির কমান্ডার’ বাণিজ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করলেন রিজভী কাশ্মিরে মন্ত্রীকে লক্ষ্য করে গ্রেনেড হামলা, নিহত ৩ গোপালগঞ্জে সাঁতার প্রশিক্ষণের উদ্বোধন আমরা জয়ের মুখোমুখি: নোমান ডেসকোর পর্ষদ সভা ২৮ সেপ্টেম্বর এইচটিসির সঙ্গে ১১০ কোটি ডলারের চুক্তি গুগলের তারকা হওয়ার আগেই দেমাগ দেখাচ্ছেন সাইফ কন্যা সারা সূচকের সাথে কমেছে লেনদেনও রাখাইনে রেডক্রসের ত্রাণবহরে বৌদ্ধদের বোমা নিক্ষেপ রোহিঙ্গা মুসলমান গণহত্যার প্রতিবাদে গোপালগঞ্জে মানববন্ধন শেয়ার কিনবে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের পরিচালক দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারী ব্যাক আপ দিবে আইটেল পি ১১ স্মার্টফোন ভারতের আগ্রাসনের জবাবে পরমাণু হামলার হুঁশিয়ারি পাকিস্তানের বিশ্ব জনমত গড়তে জাতীয় ঐক্যের বিকল্প নেই: মির্জা ফখরুল ৩ কোম্পানির লেনদেন চালু রোববার কে এই রহস্যময়ী? শাভেজ 'পত্নী', নাকি ইভাঙ্কার 'বন্ধু'! যৌন সন্ত্রাসের শিকার রোহিঙ্গা নারীরা কী করবে? রাম রহিমের মতোই যৌনতায় আসক্ত ভণ্ডবাবা ফলহারি মহারাজ! আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন ইমরান এইচ সরকার মায়নমারকে চাপ দিতে ভারতের প্রতি ওবায়দুল কাদের আহ্বান বেগুনের যত স্বাস্থ্য উপকারিতা! প্রথম ঘণ্টায় লেনদেন ১৯৪ কোটি টাকা আমরা নেটওয়ার্কসের শেয়ার বিওতে গণহত্যার দায়ে বার্মিজ সেনাবাহিনীকে সব ধরনের সহযোগিতা স্থগিত করল যুক্তরাজ্য অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে চট্টগ্রাম বিএনপি রোহিঙ্গা বিতারণের নীলনকশা চূড়ান্ত হয় ১০ দিন আগেই শ্রদ্ধার বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা