ঢাকা, বুধবার ২২শে নভেম্বর ২০১৭ - 

আদালতে আ.লীগের কোনো বন্ধু পাওয়া গেল না?: তোফায়েল

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 বুধবার ১৩ই সেপ্টেম্বর ২০১৭

ঢাকা: বিএনপিকে উৎফুল্ল করতেই সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় এবং এর পর্যবেক্ষণ দেয়া হয়েছে দাবি করে আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এই রায় প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।


এই রায় প্রসঙ্গে এমিকাস কিউরিদের (আদালতের বন্ধু) দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বিস্মিত হই, এই দেশে এই আদালতে আওয়ামী লীগের কোনো বন্ধু পাওয়া গেল না?’  


বুধবার রাতে সংসদের কার্যপ্রণালী বিধির ১৪৭ ধারায় আলোচনায় অংশ নিয়ে তোফায়েল এসব কথা বলেন। সন্ধ্যায় এ বিষয়ে আলোচনার প্রস্তাব দেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের সাংসদ মইনুদ্দীন খান বাদল।


সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত করে আনা সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করেছে আপিল বিভাগ। এর ফলে বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিসিয়াল কাউন্সিলের হাতে ন্যস্ত হয়। ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে ১৯৭২ সালের সংবিধান প্রতিস্থাপিত করেছিল জাতীয় সংসদ। ওই সংবিধানের ৯৬ ধারা অনুযায়ী নৈতিক স্খলনজনিত কারণে বিচারপতিদের অপসারণ করতে পারতো সংসদ।


গত ১ আগস্ট এই মামলার যে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ হয়েছে, তাতে শাসনব্যবস্থা, সংসদ নির্বাচন কমিশন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ে নানা মন্তব্য এসেছে। ওই রায় এবং পর্যবেক্ষণ নিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা, এমনকি খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও প্রধান বিচারপতির সমালোচনা করেছেন। রায়ের পর্যবেক্ষণে বঙ্গবন্ধুকে ‘খাটো করা হয়েছে’ অভিযোগ তুলে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের দাবিও তুলেছেন ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতা।


বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় অংশ নিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি। সংসদকে কেউ যদি ছোট করার চেষ্টা করে তাহলে সমস্ত জাতিকেই ছোট করা হয়। কারণ আমরা জনগণের ভোটে নির্বাচিত প্রতিনিধি।’


তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘কোনো বড় দেশেই জুডিশিয়াল কাউন্সিল নেই। আজকে আমার অবাক লাগে এটি এখানে চালু করা হয়েছে। ১৯৫৬ এর সংবিধানে আছে সংসদ বিচারপতিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। আর ৭৭ এর সামরিক সরকারের প্রচলন করা আইনটি প্রধান বিচারপতির ভালো লেগে গেল।’


প্রধান বিচারপতির উদ্দেশ্যে তোফায়েল বলেন, ‘তিনি বলেছেন তাকে মিস কোড করা হয়েছে। মিস কোড কখন হয় যখন বেশি কথা বলা হয়। বেশি কথা ভালো নয়। এ পর্যন্ত কয়জন প্রধান বিচারপতি এতো বেশি কথা বলেছেন?’


বিচারপতির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত করা যায়, রাষ্ট্রপতি পদ থেকে সরে গেলে তার বিরুদ্ধে করা যায়। কী বিস্ময়কর! বিচারপতিদের দুর্নীতির তদন্ত করা যাবে না।’


তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে কাদের আদালতের অ্যামিকাস কিউরি বা আদালতের বন্ধু হিসেবে নেয়া হয়েছে। কারা আদালতের বন্ধু হয়েছেন। ড. কামাল হোসেন। তিনি আওয়ামী লীগ ও প্রধানমন্ত্রীবিরোধী। আমিরুল ইসলামের সঙ্গে আ.লীগের সম্পৃক্ততা নেই। রোকন উদ্দিন মাহমুদ আদালতে এক কথা বলেছেন, আর বাইরে আরেক কথা বলেছেন। এজে মাহমুদ আলী। তিনি দৌড় মাহমুদ আলী হিসেবে পরিচিত। হাসান আরিফ। তিনি বিএনপির সময়ে অ্যাটর্নি জেনারেল নিযুক্ত হয়েছেন।  ফিদা কামাল। ওয়ান ইলেভেন সরকারের অ্যাটার্নি জেনারেল ছিলেন। আব্দুল ওয়াদুদ বিএনপির।  টিএইচ খান বিএনপির প্রতিষ্ঠা জিয়াউর রহমানের মন্ত্রী ছিলেন। ফারুকিও তাদের পক্ষে বক্তব্য দিয়েছেন। একমাত্র আজমালুল হক কিউসি বিপক্ষে বক্তব্য দিয়েছেন।’


আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা ড. কামাল হোসেনের একটি সাক্ষাৎকারের প্রসঙ্গ তুলে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘ড. কামাল বলেছেন আমাদের সংবিধান শুরুই হয়েছিল ‘আমরা’ দিয়ে। কিন্তু তিনি জানেন না স্বাধীনতার শুরু হয়েছিল ‘আমি’ দিয়ে। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আমি যদি হুকুম দেবার নাও পারি। তিনি বেমালুন ভুলে গেছেন এটি। আমারত্ব একদিন হিমালয়ের আমিত্বে বিলীন হয়ে গিয়েছিল। আমি এবং আমরা নিয়ে অহেতুক একটি বিতর্ক সৃষ্টি করা হয়েছে।’

Advertisement
অবশেষে পদত্যাগ করলেন জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট মুগাবে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচে রংপুরের জয় কেমন যাবে আপনার বুধবার দিনটি! জেলা জজ ও যুগ্ম জজসহ ২৫ বিচারকের রদবদল কেঁদে ফেললেন ঐশ্বরিয়া রাই এবার নাচলেন ও গাইলেন এমপি শামীম ওসমান যৌন হয়রানির শিকার উত্তর কোরিয়ার নারী সৈন্যরা অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিং ও বড়বড় খানা খন্দের কারনে বাড়ছে দূর্ঘটনা, অকালে ঝরছে প্রান আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সহ ২০ জনকে আদালতের শোকজ জাবিতে ভর্তি হতে এসে আরো দুই শিক্ষার্থী কারাগারে জাবিতে ৫ম ম্যানেজমেন্ট উইক শুরু বুধবার আমতলী ও তালতলী উপজেলায় ৫১টি বিদ্যালয়ের ভবন জরাজীর্ন: শিক্ষক নেই ২৬০ জন মওদুদের বক্তব্য গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ : হানিফ জনগণ থেকে সরকার সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে: মির্জা ফখরুল বরিশালে তারেক রহমানের জন্ম দিন পালন ফার্ম্মাসিষ্ট জটিলতায় বাড়ছে ড্রাগলাইসেন্স বিহীন ফার্ম্মেসী ইবির ভর্তি পরীক্ষার পূর্ণাঙ্গ সূচী প্রকাশ অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন কুমিল্লার মেয়র সাক্কু প্রেমের ফাঁদে স্কুলছাত্রীকে আ.লীগ নেতার একাধিকবার ধর্ষণ বিয়ের রাতে পালালেন সাবিলা নূর! পায়ের ওপর পা দিয়ে বসলে কুঁজো হয়ে যেতে পারেন চিরকাল যৌবন ধরে রাখবে যেসব খাবার যে কাজগুলোই প্রতিনিয়ত ক্ষতি করছে মস্তিষ্কের প্রাথমিক সমাপনীতে নাতির সঙ্গে ৬৫ বছরের নানী অর্থনৈতিক সঙ্কটের মুখে তুরস্ক, কাটিয়ে ওঠার আশাবাদ এরদোগানের নিজেকে আরো সুন্দর করে তুলতে ব্যবহার করুন এই ৭ তেল পুলিশ পাহারায় খোলা জায়গায় ভারতীয় মন্ত্রীর মূত্রত্যাগ টিকল না ১০ নম্বর সম্পর্কও? সুস্মিতার বয়ফ্রেন্ডের তালিকা... নাইজেরিয়ায় মসজিদে হামলা: নিহত অন্তত ৫০ লেনদেনের শীর্ষে লংকাবাংলা ফিন্যান্স বাজারে আইলাইফের নতুন ল্যাপটপ আ.লীগ নেতার অভিযোগ: খালেদার গাড়িবহরে হামলার নেপথ্যে নিজাম হাজারী তবু চলছে সৌদি হামলা; আরো ১২ ইয়েমেনি নিহত মাদ্রাসার কক্ষ থেকে হাত বাঁধা ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার খাগড়াছড়িতে সাংবাদিকদের মানববন্ধন শ্রাবন্তীর ‘বয়ফ্রেন্ড’ শাকিব খান ‘৪০টির বেশি আসন পাবে না আ’লীগ’ ‘শিগগিরই নতুন বিচারপতি নিয়োগ’ স্বামী-স্ত্রীর দ্বন্দ্বের জের ধরে মারপিট: উভয় পক্ষের আহত ৬ বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ: আ‘লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা কলাপাড়ায় তারেক রহমানের জন্মদিন পালন কলাপাড়ায় প্রসুতী রোগীর মৃত্যুর পর ফের আলোচনায় আলেয়া ক্লিনিক পুঁজিবাজারে দর সংশোধন ‘নতুন করে ট্রেড ইউনিয়নের অনুমতি দেওয়া হবে না’ রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে চলতি সপ্তাহেই সমঝোতা: সু চি সোনিয়ার বর্ণাঢ্য যুগ ৬ কোম্পানির লেনদেন স্থগিত বুধবার ‘ইসরাইলকে প্রতিহত করার পূর্ণ অধিকার লেবাননের রয়েছে’ ‘নির্বাচনের আগেই দেশে ফিরবেন তারেক রহমান’ ‘সিনহা যাওয়ায় বিচার বিভাগের কাজ দ্রুত এগোচ্ছে’