ঢাকা, রবিবার ১৯শে নভেম্বর ২০১৭ - 

সঙ্কটে ভারতের বিচারবিভাগ

প্রাইমনিউজবিডি.কম
 বুধবার ১৫ই নভেম্বর ২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে একজন সাবেক বিচারপতির বিরুদ্ধে দায়েরকৃত দুর্নীতির মামলাকে কেন্দ্র করে দেশের বিচারবিভাগ এক গভীর সঙ্কটে পড়েছে। অভিযোগ উঠেছে, ভারতের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র এই মামলায় তার ক্ষমতার 'চূড়ান্ত অপব্যবহার' করেছেন।


তবে বিচারবিভাগে দুর্নীতির দিকে ইঙ্গিত করে ভারতের দুই সিনিয়র আইনজীবী, কামিনী জয়সওয়াল ও প্রশান্ত ভূষণ শীর্ষ আদালতে যে আবেদন করেছিলেন, সেটি খারিজ করে দিয়ে মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট তাদের তীব্র ভর্ৎসনা করেছে। কিন্তু তারপরও এই বিতর্ক থামার কোনও লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।


ঠিক কী নিয়ে এই বিতর্ক?


এই মামলাটি আসলে ভারতে বেআইনিভাবে মেডিক্যাল কলেজের রেজিস্ট্রেশন পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগকে ঘিরে, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই যার তদন্ত করছে। গত সেপ্টেম্বর মাসে ওড়িশা হাইকোর্টের একজন সাবেক বিচারপতি আই এম কুদ্দুসিকে তারা এই তদন্তের সূত্র ধরে গ্রেপ্তারও করেছিল।


এই অভিযুক্তরা ঘুষ নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট থেকে মেডিক্যাল কলেজগুলোর অনুকূলে রায় বের করে আনবেন বলে কথা দিয়েছিলেন, সিবিআই তল্লাসিতে সেই ঘুষের ২ কোটি রুপি উদ্ধারও হয়েছিল। কিন্তু পরে সেই সাবেক বিচারপতি জামিন পেয়ে যান।


তারপর এই মামলায় বিশেষ তদন্তকারী দল গঠনের দাবি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করেন আইনজীবী কামিনী জয়সওয়াল ও প্রশান্ত ভূষণ। তারা বলছেন, যে বেঞ্চ এই আবেদন শুনবে সেখানে যেন প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রকে অন্তর্ভূক্ত করা না হয়। কারণ তিনি এ বছরের গোড়ার দিকে মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া সংক্রান্ত একাধিক মামলা শুনেছিলেন, ফলে এক্ষেত্রে একটা স্বার্থের সংঘাত বা 'কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট' হতে পারে।


প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট অভিযোগটা কী?


প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে মূল অভিযোগটা হচ্ছে, তিনি এই আবেদনের শুনানিতে অবাঞ্ছিতভাবে হস্তক্ষেপ করেছেন এবং এটা নিশ্চিত করেছেন যে কেবলমাত্র তার পছন্দের বিচারপতিরাই যাতে বিচারবিভাগের দুর্নীতি সংক্রান্ত এই স্পর্শকাতর মামলাটা শুনতে পারেন। কামিনী জয়সওয়ালের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের একজন সিনিয়র বিচারপতি, জাস্টিস চেলমেশ্বর বিষয়টিকে পাঁচ বিচারপতির এক সাংবিধানিক বেঞ্চে রেফার করে দিয়েছিলেন।


কিন্তু পরদিন নাটকীয়ভাবে প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র সেই বেঞ্চ খারিজ করে দিয়ে নিজের পছন্দ অনুযায়ী আর একটি পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ গঠন করে দেন।


ভারতীয় বিচারবিভাগের ইতিহাসে প্রধান বিচারপতি এভাবে হস্তক্ষেপ করে বেঞ্চ পাল্টে দিচ্ছেন এবং নিজের পছন্দের বিচারপতিদের সেখানে দায়িত্ব দিচ্ছেন - এমন ঘটনা নজিরবিহীন। বিশেষ করে এতে আরও চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে এই কারণে যে ওড়িশা হাইকোর্টের সাবেক বিচারপতি আই এম কুদ্দুসি সুপ্রিম কোর্টের যে বিচারপতিদের ঘুষ দেওয়ার জন্য অভিযুক্ত, সেই মামলাও শুনেছিলেন জাস্টিস দীপক মিশ্র। এবং তিনি নিজেও ওড়িশা রাজ্যেরই লোক।


আইনি দিকপালদের প্রতিক্রিয়া


এই ঘটনায় ভারতের সুপরিচিত সাংবিধানিক বিশেষজ্ঞ ও আইনজীবীরা অনেকেই মুখ খুলেছেন এবং সরাসরি প্রধান বিচারপতির সমালোচনা করেছেন - যেটা সে দেশে একেবারেই বিরল।


দেশের প্রাক্তন আইনমন্ত্রী শান্তি ভূষণ যেমন বলছেন, প্রধান বিচারপতি যেভাবে জাস্টিস চেলমেশ্বরের গঠন করা বেঞ্চ ভেঙে দিয়েছেন সেটা করার কোনও এক্তিয়ারই তার নেই - এবং এটা এ দেশে সুপ্রিম কোর্ট তথা বিচারবিভাগের ভবিষ্যৎ নিয়ে খুব গুরুতর প্রশ্ন তুলে দিয়েছে।


সিনিয়র আইনজীবী দুষ্যন্ত দাভে মনে করছেন, প্রধান বিচারপতির আচরণ দেশে আইনের শাসনের অমর্যাদা ছাড়া কিছুই নয় এবং এতে সুপ্রিম কোর্টের বিশ্বাসযোগ্যতাই প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টে প্রায় পঞ্চাশ বছর ধরে প্র্যাকটিস করা আইনজীবী রাজু রামচন্দ্রন আবার বলছেন, তার গোটা কেরিয়ারে এত কুৎসিৎ ও হতাশাব্যঞ্জক ঘটনা তিনি আগে কোনও দিন দেখেননি।


সুপ্রিম কোর্টেরই সাবেক এক বিচারপতি সন্তোষ হেগড়ে মন্তব্য করেছেন, দেশের বিচারবিভাগের কাজের নমুনা যদি এই হয় তাহলে শুধু ঈশ্বরই ভারতকে রক্ষা করতে পারেন।


সূত্র: বিবিসি বাংলা

Advertisement
রাজনৈতিক শিষ্টাচারের কারণে আজ রংপুর যাইনি: ফখরুল ইতিহাস বিকৃতিকারীরাই বড় গলায় কথা বলে: মোশাররফ লেকহেড স্কুল খুলে দেওয়ার আদেশ ১০ দিনের জন্য স্থগিত আন্দোলনে অচল বুয়েট: ২১ দিনেও ক্লাসে ফেরেনি শিক্ষার্থীরা সৌদি-ইরানের এই তীব্র শত্রুতা কেন? বাংলাদেশ সীমান্তে গম চাষ নিষিদ্ধ করেছে ভারত জাতিসংঘকে দিয়ে রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধান হবে না: চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী সূচকের উত্থানে লেনদেন চীনে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৯, আহত ৮ বাংলাদেশে আসছে আইফোন ১০ গুজরাট নির্বাচনের আগেই কংগ্রেস সভাপতি হচ্ছেন রাহুল রোগ নিরাময়ে মুলার ভূমিকা, দারুন সব উপকারিতা যে কারণে বিশ্বের ক্ষমতাধর ৪ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় ভারতের সঙ্গে সরকারের সম্পর্ক নষ্ট করতে হিন্দুদের বাড়িঘরে আগুন: সেতুমন্ত্রী ফিলিস্তিনি অফিস বন্ধ করলে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার হুমকি পিএলওর বিশ্বসেরা মেধাবী ঈশ্বরদীর মুনমুন শীতে সর্দিকাশি দূর করার ঘরোয়া দাওয়াই প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা শুরু, পরীক্ষার্থী ৩১ লাখ নির্বাচন ও আন্দেলনের প্রস্তুতি নিতে নেতাদের নির্দেশ খালেদা জিয়ার রাজনীতির মাঠে ভোটের উত্তাপ দাঁড়িয়ে পানি পান ডেকে আনতে পারে বিপদ! অবশেষে টটেনহামকে হারানোর স্বাদ পেল আর্সেনাল নরমাল ডেলিভারি চান? জেনে নিন গর্ভাবস্থায় আপনাকে কি করতে হবে! ফ্যামিলি টেক্সের ৫% লভ্যাংশ ঘোষণা সুয়ারেজের জোড়া গোলে জয় পেয়েছে বার্সেলোনা প্যারাডাইস পেপারস কেলেঙ্কারির তালিকায় ম্যান্ডেলাও রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে আসতে চান প্রণব মুখার্জি আকাশ মেঘলা থাকলেও শুষ্ক থাকতে পারে আবহাওয়া এর চেয়ে দুঃখজনক আর কী হতে পারে? রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছে চীন ভাইস চেয়ারম্যানদের নিয়ে বৈঠকে বসেছেন খালেদা জিয়া কেমন যাবে আপনার রবিবার দিনটি! জনপ্রিয়তায় ইর্ষান্বিত হয়ে নেতা-কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করছে সরকার : ফখরুল বিয়ের দিন মেয়েরা যা চিন্তা করে বিশ্বসুন্দরীর মুকুট জিতলেন ভারতের মানসী চিল্লার মহাস্থানে বড় মাছের মেলা, বগুড়ায় নবান্ন উৎসব নন্দীগ্রামে ৮শ’ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার ৫ চাঁদা না পেয়ে একটি পরিবারের বাড়ি-ঘর ভাংচুর সহ নানা হয়রানির অভিযোগ নেত্রকোনা জেলা ছাত্রদলের সভাপতিসহ গ্রেফতার ৬ এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে আগুন দেয় ছাত্রলীগ: তদন্ত প্রতিবেদন ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক ৮ দিনের রিমান্ডে ক্যান্সার রুখতে বেশি বেশি সিগেরেট খেতে হবে! রাজশাহীকে উড়িয়ে ঢাকার দুর্দান্ত জয় ধর্মান্তরিত স্ত্রীকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ স্বামীর বিরুদ্ধে ঘরের কাজ করুন নিয়মিত বালিশ পাল্টাবেন কখন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ঢাকা থেকে উদ্ধার বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের চেয়ে শ্রেষ্ঠ ভাষণ পৃথিবীতে আর কিছুই হতে পারে না: প্রধানমন্ত্রী যুবদলের সকল ইউনিটকে তারেক রহমানের ৫৩ তম জন্মদিন পালন করার নির্দেশ বাকৃবিতে ছাত্রদলের বিক্ষোভ