বুধবার, ২৩ মে ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, ০৪:২৬:০৮

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার অনুমতি পেলেন না ৭ চিকিৎসক

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার অনুমতি পেলেন না ৭ চিকিৎসক

ঢাকা : কারাগারে তিন বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার জন্য কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি পাননি তার চিকিৎসকরা। এই চিকিৎসকরা নিয়মিত বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতেন।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দীন রোডের পুরান কারাগারে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে জেল গেটে যান ৭ চিকিৎসক। তবে এই চিকিৎসকদেরকে কারাগারের ভেতরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি বলে জানা গেছে।

সূত্রে জানা গেছে, বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি চেয়ে কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিনের সঙ্গে দেখা করেন এই সাত চিকিৎসক। চিকিৎসকরা হলেন- অধ্যাপক মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন, অধ্যাপক সিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ, অধ্যাপক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, অধ্যাপক মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস, সহযোগী অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম সেলিম, মোহাম্মদ ফায়াজ হোসেন শুভ ও আনোয়ারুল কাদির বিটু।

এরপরে কারাগেটে অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি চাইলে কারা মহাপরিদর্শক এ বিষয়ে অপারগতা প্রকাশ করেন। তবে কারা মহাপরিদর্শক, আমাদের আশ্বস্ত করেছেন প্রয়োজন হলে এই চিকিৎসকদেরই বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে।’

উল্লেখ্য, দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া তারেক রহমানসহ বাকিদের ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। দণ্ডবিধি ১০৯ ও ৪০৯ ধারায় খালেদা জিয়াসহ বাকিদের সাজা দেয়া হয়। বয়স বিবেচনায় খালেদা জিয়ার সাজা কমানো হয় বলে রায়ে উল্লেখ করেন আদালত। কারাদণ্ডের পাশাপাশি সব আসামিকে দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেয়া হয়। গত ৮ ফেব্রুয়ারি পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান এ রায় দেন। রায়ের পর থেকেই বিএনপির চেয়ারপারসন পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের পুরানো কেন্দ্রীয় কারাগারে রাখা হয়েছে।

আজকের প্রশ্ন

খুলনা সিটি নির্বাচনের ভোটকে ‘প্রহসন’ বলেছেন বিএনপি ও বামপন্থিরা। আপনি কি একমত?