Print
প্রচ্ছদ » রাজনীতি
Wed, 11 Jan, 2017

এমপি লিটন হত্যার সব রহস্য উদঘাটন করা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আমরা সন্ত্রাস ও জঙ্গি দমনে জিরোটলারেন্স নীতি পালন করে চলছি। হঠাৎ করেই গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনকে হত্যা করা হয়েছে। এমপি লিটন হত্যার সব রহস্য উদঘাটন করে প্রপার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আমরা এতোটুকু বলতে পারি দেশে যত হত্যাকাণ্ড হয়েছে। যারা করেছে সেই ক্রিমিনালদের সনাক্ত করে ধরেছি। নিরাপত্তা বহিনীর বেশ কয়েকজন সিনিয়র অফিসার ওই এলাকায় অবস্থান করে তদন্ত কাজ করছে। এমপি লিটনকে কারা হত্যা করেছে? কেন করেছে? সব কিছু উদঘাটন করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বুধবার বিকেল ৩টায় রংপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে স্বরাষ্ট্রন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভা শেষে সাংসাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। এমপি লিটন হত্যার পর সাধারণ মানুষের জীবন হুমকির মধ্যে পড়ে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রশ্নই আসে না। কারণ আমাদের দেশের মানুষ অত্যান্ত শান্তি প্রিয়। আমাদের দেশের মানুষ সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদকে ঘৃণা করে। সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁডিয়েছে। জনগনই আমাদের বড় শক্তি। এজন্য আমরা বলি, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে আছে। যারা এমপি লিটনকে হত্যা করেছে অবশ্যই তাদের সনাক্ত করা হবে।

সাংবাদিকদের অন্য এক প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, আমরা যত জঙ্গি ধরেছি বা সনাক্ত করেছি, তারা কোন না কোন সময় উত্তরাঞ্চলে ছিল কিংবা উত্তরাঞ্চলে তাদের বাড়ি। অনেকেই তবে সবাই নয়। প্রধানমন্ত্রীর ডাকে দেশের আলেম উলামা, খেটে খাওয়া মানুষ, ছাত্র-শিক্ষক জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। আমরা জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে রেখেছি। সব শেষ করেছি এমন কথা বলছি না। বিশ্বের বড় বড় দেশ জঙ্গি আক্রমণের স্বীকার হচ্ছে। আমেরিকা, ফ্রান্স, ব্রিটেন ও বাদ যাচ্ছে না। বাংলাদেশ অনেক ভালো আছে। জঙ্গিবাদকে পুরোপুরি নির্মূল করা না গেলেও নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছি বলেই। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সমম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি টিপু মুন্সি এমপির সভাপতিত্বে সভায় কমিটির সদস্যবৃন্দ ছাড়া রাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, বিজিবির মহাপচিালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেনসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।