Print
প্রচ্ছদ » রাজনীতি
Wed, 11 Jan, 2017

দল নয় জনগণের কথা ভাববেন রাষ্ট্রপতি, আশা নজরুলের

ঢাকা: রাষ্ট্রপতি অাব্দুল হামিদ নিজের দলের চিন্তা বাদ দিয়ে জনগণের কথা ভেবে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন বলে অাশাবাদ ব্যক্ত করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

তিনি বলেন, ‘তার দল অাওয়ামী লীগকেও তিনি এ কথা বোঝাতে সক্ষম হবেন বলে অামরা অাশা করি।’

বুধবার (১১ জানুয়ারি) বিকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিয়নের গোল টেবিল মিলনায়তনে ‘মঈন উদ্দিন-ফখরুদ্দিনের অসাংবিধানিক ক্ষমতা দখলের প্রতিবাদে ‘প্রতিবাদ সমাবেশ’ শীর্ষক অালোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সভাটির অায়োজন করে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ(বিএসপিপি)।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসনের অাহ্বানেই সাড়া দিয়ে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন কমিশন গঠনে সব দলের পরামর্শ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। অাজ সর্বশেষ অাওয়ামী লীগের সঙ্গে বৈঠক করছেন তিনি। তার প্রতি অামাদের অাশা রয়েছে তিনি নিজের দলের কথা চিন্তা না করে জনগণকেই প্রাধান্য দেবেন। কারণ জনগণ চায় নিরপেক্ষ নির্বাচন।’

তিনি অারও বলেন, ইতিহাসই স্পষ্ট করে বলে দেয় অাজ যারা ক্ষমতায় অাসীন তারা সবসময়ই গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে কাজ করেছে। ১৯৭৫ সালের জানুয়ারিতে স্বাধীনতার সুবর্ণ ফসল এই গণতন্ত্রকে এ দলই জবাই করেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

অাবার ওয়ান ইলেভেনে ফখরুদ্দিন-মইনুদ্দিনকে কারা কাজে লাগিয়েছে? এই দলই তাদেরকে অান্দোলনের ফসল করেছে। ফখরুদ্দিন-মইনুদ্দিনের ক্ষমা তো হবেই না বরং এই দলকেও মাফ হবেনা বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘যেজন্য অামরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি, যেজন্য অামরা ৯০ এ গণঅভ্যুত্থান করেছি সেই কারণকে ব্যর্থ করে দেওয়া হয়েছে। ক্ষমতার লোভেই অাওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে নষ্ট করেছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

প্রতিবাদ সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন, বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের (বিএসপিপি) ভারপ্রাপ্ত অাহ্বায়ক রুহুল অামিন গাজী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাড. রুহুল কবীর রিজভী।

প্রতিবাদ সমাবেশটিতে অারও উপস্থিত ছিলেন- জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ড. মুস্তাহিদুর রহমান, ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব ড. এস এম রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ও কৃষিবীদ চৌধুরি অাবদুল্লাহ অাল ফারুক, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. নুরুল ইসলাম প্রমুখ।