Print
প্রচ্ছদ » আন্তর্জাতিক
Wed, 11 Jan, 2017

ওস্তাদ বিসমিল্লাহ’র সানাই চুরি করলো নাতি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যার একেকটা সানাই অর্থে পরিমাপ যায় না, সোনা-জহরৎ-হীরার চেয়েও দামী একেকটা প্রসিদ্ধ সানাই। আর সেগুলোই মাত্র কয়েক হাজার টাকার জন্য বিক্রি করে দিয়েছে স্যাকড়ার দোকানে। আবার শিল্প-সংস্কৃতি সম্পর্কে উদাসীন হতচ্ছাড়া স্যাকড়াও রূপার অংশ গলিয়ে তাল করে ফেলেছে।

কিন্তু রক্ষা হয়নি। শেষমেশ গত মঙ্গলবার বিকেলে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের বিশেষ টাস্ক ফোর্সের হাতে ধরাও পড়েছে তারা। উপমহাদেশের প্রখ্যাত সানাই শিল্পী ওস্তাদ বিসমিল্লাহ খাঁ’র সানাই চুরির ঘটনায় তাঁর নাতিকে গ্রেপ্তার করেছে ভারতের পুলিশ। তার কাছ থেকে মাত্র ১৭ হাজার টাকায় কিনেছিলো যে ২জন স্বর্ণকার, তাদেরকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রুপায় বাঁধানো ওই সানাইগুলি ভেঙে সেখান থেকে গলিয়ে বের করা ১ কেজি রুপাও উদ্ধার করেছে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে।

পুলিশের কর্মকর্তা এস আনন্দ জানান, ‘গতমাসে বেনারসে বিসমিল্লাহ খাঁর ছেলে কাজিম হুসেইনের বাড়ি থেকে সানাইগুলি চুরি যায়। তদন্তের জন্য সবাইকেই নজরে রাখছিলাম কারণ আমরা প্রথম থেকেই সন্দেহ ছিল যে পরিবারের মধ্যে থেকেই কেউ এই চুরিটা করেছে। ওস্তাদজির নাতি নাজরে হাসান ওরফে সাদাবকে জেরা করায় সে চুরির কথা স্বীকার করে।’

মোট চারটি সানাই উদ্ধার করা হয়েছে এরমধ্যে একটি ওস্তাদজী বিশেষ অনুষ্ঠানে বাজাতেন। তাছাড়া ৩টি সানাই ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নরসিমা রাও, কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল আর বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালু প্রসাদ যাদবের কাছ থেকে উপহার পেয়েছিলেন।

আনন্দ জানান, সাদাবের কোনও ধারণাই ছিল না ওই সানাইগুলোর কত দাম হতে পারে। এমনিতেই এটা অমূল্য জাতীয় সম্পদ, এর হিসাব টাকায় হয় না। কোনও কাজকর্ম করে না সাদাব, ওর কোনও রোজগারও নেই। শুধুমাত্র টাকার জন্যই সানাইগুলো চুরি করেছিল।

বাকি বিসমিল্লাহ খাঁয়ের পরিবার অনেকদিন ধরেই তাঁর বাদ্যযন্ত্র, পুরষ্কার সহ অন্যান্য স্মরণিকাগুলির জন্য একটি সংগ্রহশালা তৈরির দাবী করছে।