মঙ্গলবার, ১৪ আগস্ট ,২০১৮

Bangla Version
SHARE

সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, ০২:৪১:৫৯

কি অদ্ভুত মিল বন্ধন!

কি অদ্ভুত মিল বন্ধন!

স্পোর্টস ডেস্ক : দুই দলের কি অদ্ভুত মিল বন্ধন। যেনো চুক্তি করেই এমনটা করা হয়েছে। সত্যি কি তাই? কিন্তু চুক্তিটা কি নিয়ে করা হয়েছিলো? ৩৩৩, ১৫৪ নাকি ১৭৯?

দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর প্রথম ওয়ানডেতেও আফগানিস্তানের কাছে ১৫৪ রানে হেরেছিল জিম্বাবুয়েে। ওইদিন আফগানরা ৫ উইকেটে করেছিল ৩৩৩ রান। জয়ের লক্ষে খেলতে নেমে ১৭৯ রানেই অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে।

কিন্তু পরের ম্যাচেই সেই ১৫৪ রানেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় পেল তারা। ব্রেন্ডন টেলরের দুর্দান্ত সেঞ্চুরিতে সিরিজে সমতা আনে জিম্বাবুয়ে।

শারজায় টস জিতে ব্যাট করতে নামে জিম্বাবুয়ে। টেলরের সঙ্গে সিকান্দার রাজার দারুণ জুটিতে ৫ উইকেটে ৩৩৩ রান করে তারা। জবাবে তেন্দাই চাতারা ও ক্রেমারের বোলিংয়ে ৩০.১ ওভারে সেই ১৭৯ রানে গুটিয়ে যায় আফগানরা।

মাত্র ১০ রানে প্রথম উইকেট হারালে হ্যামিলটন মাসাকাদজার সঙ্গে টেলরের ৮৫ রানের জুটি প্রতিরোধ গড়ে। মাসাকাদজা ৪৮ রানে ফিরলে ক্রেইগ আরভিনের সঙ্গে ৪৯ রানের জুটি গড়েন টেলর।

সিকান্দারের সঙ্গে ১৩৫ রানের অসাধারণ জুটি গড়ার পথে নবম ওয়ানডে সেঞ্চুরি পান টেলর। ১২১ বলে ৫ চার ও ৮ ছয়ে ১২৫ রান করেন তিনি। ৭৪ বলে ৯ চার  ও ৪ ছয়ে ৯২ রানে আউট হন সিকান্দার।

আফগান স্পিনার রশিদ খান সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নেন।

জবাব দিতে নেমে ব্যাটিং ধসের মুখোমুখি হয় আফগানরা। ১১৫ রানে ৯ উইকেট হারায়। এরপর মুজিব উর রহমানকে নিয়ে ৬৪ রানের জুটি গড়েন দৌলত জাদরান। যেটা কেবল ব্যবধান কমানো ছাড়া আর কোনও অবদান রাখেনি।

রহমত শাহ (৪৩) ও মোহাম্মদ নবির (৩১) ভূমিকা ছিল উল্লেখযোগ্য। দৌলত সর্বোচ্চ ৪৭ রানে অপরাজিত ছিলেন। মুজিবকে ১৫ রানে বোল্ড করে দলের জয় নিশ্চিত করেন ক্রেমার।

ক্রেমার সর্বোচ্চ চারটি উইকেট নেন, চাতারা পান তিনটি।

আজকের প্রশ্ন

খুলনা সিটি নির্বাচনের ভোটকে ‘প্রহসন’ বলেছেন বিএনপি ও বামপন্থিরা। আপনি কি একমত?